BREAKING NEWS

২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

২ লক্ষ কোটি কালো টাকা প্রকাশ্যে এনে বিপাকে পরিবার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 4, 2016 7:55 pm|    Updated: December 4, 2016 7:55 pm

Income Tax department rejects declarations from Mahesh Shah, Mumbai family, worth a total of Rs 2,13,860 crore

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মুম্বই নিবাসী এক পরিবারের সদস্যরা ভেবেছিলেন, কালো টাকার হিসাব সরকারকে জানালে অন্তত ৫০ শতাংশ টাকা সাদা করে নিয়ে বাড়ি ফেরা যাবে৷ কিন্তু তাঁদের সেই আশায় জল ঢেলে দিল আয়কর বিভাগ৷ রবিবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক জানিয়ে দিল, কালো টাকার হিসাব প্রকাশ করার মেয়াদ ফুরিয়ে গিয়েছে৷ কেন্দ্র এখন ওই পরিবারের আয়ের উৎস জানতে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে৷

সূত্রের খবর, মুম্বই নিবাসী চার সদস্যের ওই পরিবার প্রায় ২ লক্ষ কোটি টাকার হিসাব সরকারের সামনে তুলে ধরতে চেয়েছিলেন৷ তাঁদের আশা ছিল, জরিমানা, সারচার্জ ও কর বাবদ ৪৫ শতাংশ টাকা কেটে বাকি টাকা নিয়ে তাঁদের বাড়ি ফিরতে দেওয়া হোক৷ কিন্তু কেন্দ্র জানিয়ে দিল, ওই হিসাব জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ছিল ২০১৬-র ৩০ সেপ্টেম্বর৷ তারপর কোনও দাবিতেই কর্ণপাত করবে না সরকার৷ বরং ওই পরিবার কোথা থেকে এই বিপুল পরিমাণ অর্থ পেল, জানতে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার৷

২০১৬-১৭ সাধারণ বাজেটে ইনকাম ডিক্লারেশন স্কিম (আইডিএস) ঘোষণা করা হয়৷ সেখানে বলা হয়, কালো টাকার মালিকরা তাঁদের হিসাব বহির্ভূত টাকা প্রকাশ্যে আনলে মোট ৪৫ শতাংশ কেটে নিয়ে, শর্তাবলী-সহ নাকি টাকা ফিরিয়ে দেওয়া হবে৷ দেশ থেকে কালো টাকা নির্মূল করাই ছিল এই স্কিম লঞ্চ করার যুক্তি৷ সেই মোতাবেক এবছরের ১ অক্টোবর কেন্দ্র ঘোষণা করে, ৬৪ হাজার ২৭৫ জন আবেদনকারী ৬৫ হাজার ২৫০ কোটি টাকার হিসাব প্রকাশ্যে এনেছেন৷ পরে অবশ্য সংখ্যাটা বাড়ে৷ ৭১, ৭২৬ জন আবেদনকারী ৬৭, ৩৮২ কোটি টাকার আয় প্রকাশ্যে আনেন বলে জানায় আয়কর বিভাগ৷ কিন্তু বান্দ্রার আব্দুল রাজ্জাক মহম্মদ সৈয়দ, তাঁর স্ত্রী রুকসানা, পুত্র মহম্মদ আরিফ ও আব্দুলের বোন যে হিসাব প্রকাশে এনেছেন, তা একাই ওই স্কিমে র আওতায় ঘোষিত কালো টাকার প্রায় চারগুন৷

তবে শুধু মুম্বইয়ের ওই পরিবার নয়, ৬৭ বছরের মহেশকুমার শাহের ১৩,৮৬০ কোটি টাকার মিটমাট করতেও অস্বীকার করেছে আয়কর দফতর৷ প্রায় ৭ ঘন্টা জেরার পর তাঁর বয়স ও স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে এই আহমেদাবাদের ওই ব্যবসায়ীকে৷ কাল আবার তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে