১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ফের চালু হতে চলেছে ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বাস পরিষেবা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 6, 2017 4:53 am|    Updated: November 6, 2017 4:53 am

India, Pakistan to resume Cross-LoC trade, bus service

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  দিন কয়েক আগেই বন্দি ও তীর্থযাত্রী সংক্রান্ত মানবিক সমস্যার সমাধানে উদ্যোগ নিয়েছিল দুই যুযুধান দেশই। ভারত যেমন এদেশে বন্দি ১৪ জন পাক-নাগরিকদের দেশে ফেরত পাঠিয়েছিল, তেমনি গুরু নানকের জন্মোৎসবে যোগ দেওয়ার জন্য ২৬০০ ভারতীয় শিখকে স্বল্পকালীন ভিসা দিয়েছিল পাকিস্তানও। এই সৌজন্যের আবহে প্রায় চার মাস পর, কাশ্মীরে নিয়ন্ত্রণরেখায় ফের চালু হতে চলেছে ভারত-পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য। পুঞ্চ-রাওয়ালকোট রুট দিয়ে দু’দেশের মধ্যে বাস পরিষেবাও ফের চালু হবে। সূত্রের খবর, চলতি সপ্তাহে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বাস পরিষেবা চালু হতে পারে।

[কাশ্মীরে খতম কুখ্যাত জঙ্গি বাবর, শহিদ দুই জওয়ান]

সন্তাসবাদ ইস্যুতে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে টানাপোড়েন নতুন নয়। তবে সীমান্তের দুপারের মানুষের মধ্যে যোগাযোগ বাড়াতেও নানা পদক্ষেপ করেছে ভারত ও পাকিস্তান। সেই আস্থাবর্ধক পদক্ষেপগুলিরই অন্যতম কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণরেখা দিয়ে ভারত-পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বাস পরিষেবা। ২০০৮ সালে একটি চুক্তির মাধ্যমে কাশ্মীরে নিয়ন্ত্রণরেখা দিয়ে এই দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের সূত্রপাত। কিন্তু, উপত্যকায় সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে অর্থের উৎস সন্ধানে এনআইএ তদন্ত শুরুতে হতেই ছবিটা পালটে যায়। তদন্তে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা জানতে পারেন, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক মজবুত হওয়া তো দূর অস্ত, বরং এই দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যকে হাতিয়ার করেই কাশ্মীরের সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে অর্থ জোগান দিচ্ছে এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী। এমনকী, এই দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যে কারণে মার খাছে শাল, ডালের মতো অন্যান্য পণ্যের ব্যবসাও। তদন্তকারীদের দাবি, নিয়ন্ত্রণরেখার দু’পারের ব্যবসায়ীরাই সন্ত্রাসবাদী ও মাফিয়াদের সাহায্য করছে। চলতি বছরের গোড়ায় উরিতে নিষিদ্ধ মাদক উদ্ধার হয়। গত ১১  জুলাই পাক সেনার গুলিতে নিযন্ত্রণরেখা লাগোয়া বাণিজ্যকেন্দ্র ও পুলিশ ব্যারাকের ক্ষতি হয। এরপরই কাশ্মীরে পাকিস্তানের সঙ্গে বাণিজ্যিক আদান-প্রদানে ইতি টানে ভারত। বন্ধ হয়ে যায় ভারত-পাকিস্তান বাস পরিষেবাও।

[কাশ্মীরে ফের সেনার গাড়িতে হামলা জঙ্গিদের, আহত পাঁচ জওয়ান]

তবে স্থানীয় বিজেপি কর্মীদের তুমুল বিরোধিতা সত্ত্বেও অবশ্য প্রথম থেকে ভারত-পাকিস্তান দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য চালুর রাখার পক্ষেই ছিলেন জম্মু ও কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। অবশেষে প্রায় চারমাস পর বরফ গলল। জানা গিয়েছে, শুক্রবার পুঞ্চ ও পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের পদস্থ অসামরিক আধিকারিক বৈঠকে বসেন। সেই বৈঠকে ফের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বাস পরিষেবা চালুর বিষযে সহমত হয় দু’পক্ষই। পুঞ্চ সেক্টরে এলওসি ট্রেড বিষয়ক আধিকারিক মহম্মদ তানবীর জানিয়েছেন, ‘বৈঠকে দু’পক্ষই ফের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও যোগাযোগ ব্যবস্থা চালুর প্রশ্নে সহমত হযেছে। আমরা আশাবাদী, খুব তাড়াতাড়ি পূর্ব নির্ধারিত সূচি মেনে নিয়ন্ত্রণরেখা দিযে বাস পরিষেবা চালু হয়ে যাবে। শুরু হবে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যও।’  প্রসঙ্গত, কাশ্মীরে নিয়ন্ত্রণরেখা দুপারে বসবাসকারী মানুষদের মধ্যে যোগাযোগ ও বাণিজ্য আরও সহজ করার জন্য, ২০০৫ সালে শ্রীনগর-মুজাফরাবাদ রুটে বাস পরিষেবা চালু হয়। পরের বছর বাস পরিষেবা শুরু হয় পুঞ্চ-রাওয়ালকোট রুটেও।

[সরকারি প্রকল্পে মেলেনি বাড়ি, শৌচাগারেই দিন গুজরান এই ব্যক্তির]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে