BREAKING NEWS

৬ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

২৪ ঘণ্টায় দেশে সর্বাধিক প্রাণহানি, চিন্তা বাড়াচ্ছে করোনায় মৃত্যুর হার

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: May 1, 2020 11:43 am|    Updated: May 1, 2020 11:43 am

India recorded the biggest single-day jump in coronavirus cases

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেন্দ্রীয় সরকার যখন ৪ মে থেকে দেশের বিভিন্ন জায়গায় লকডাউন শিথিল করার কথা চিন্তাভাবনা করছে, সেইসময় উদ্বেগ বাড়াল করোনার পরিসংখ্যান। দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৭৩ জনের। নতুন করে আক্রান্ত ১৯৯৩ জন। দৈনিক হিসাবে এখনও পর্যন্ত ভারতে সর্বাধিক। দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১৪৭। আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫ হাজার ছাড়িয়েছে। শুক্রবার সকাল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের বুলেটিন প্রকাশের পর কপালে চিন্তার ভাঁজ বেড়েছে। এই পরিস্থিতিতে যদি লকডাউন শিথিল করা হয় তাহলে হিতে বিপরীত হবে না তো?

স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, রোগমুক্তির হার আশাব্যঞ্জক। দু সপ্তাহ আগে ১৩ শতাংশ ছিল। এখন তা বেড়ে হয়েছে ২৫.৩৬ শতাংশ। দেশে সেরে উঠেছেন ৮,৮৮৯ জন। যা আশার আলো দেখাচ্ছে চিকিৎসকদের। কিন্তু মৃত্যু বা আক্রান্ত বৃদ্ধির ক্ষেত্রে লাগাম পরানো যাচ্ছে না। দিন দিন বেড়েই চলেছে পরিসংখ্যান। এক সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে ৬৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা ভাবাচ্ছে স্বাস্থ্যকর্তাদের। মে মাসের শুরুতে এই পরিসংখ্যান যথেষ্ট উদ্বেগজনক। এই পরিস্থিতিতে লকডাউন শিথিল করলে যদি আরও খারাপ অবস্থা হয়! সে নিয়ে চিন্তা থেকেই যাচ্ছে।

[আরও পড়ুন: কর্মনাশা লকডাউন! শুধু ভারতেই ছাঁটাই হতে পারেন ১৩ কোটি মানুষ]

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সবচেয়ে উদ্বেগজনক জায়গায় রয়েছে মহারাষ্ট্র ও গুজরাট৷ সরকারি হিসাবে মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৯১৫ আর মৃতের সংখ্যা ৪৩২৷ শুধু ধারাভি বসতি এলাকাই চিন্তা বাড়িয়েছে। ধারাভিতে নতুন করে ২৫ জনের দেহে সংক্রমণ ধরা পড়ায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৬৯। গুজরাটে বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৪০৮২ জন, মারা গিয়েছেন ১৯৭ জন৷ আরও পাঁচটি রাজ্য দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ ও বিহার নিয়েও চিন্তায় আছেন স্বাস্থ্যকর্তারা৷

[আরও পড়ুন: কাজে এল না প্লাজমা থেরাপি, মহারাষ্ট্রে মৃত সংক্রমিত এক ব্যক্তি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে