BREAKING NEWS

২৮ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

১০০ কোটি টাকার কর ফাঁকি দিয়েছেন সোনিয়া-রাহুল, দাবি আয়কর দপ্তরের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: January 9, 2019 11:46 am|    Updated: January 9, 2019 11:46 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কর ফাঁকি মামলায় নতুন করে অস্বস্তিতে গান্ধী পরিবার। এবার একযোগে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এবং ইউপিএ সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর বিরুদ্ধে বড়সড় করফাঁকির অভিযোগ আনল আয়কর দপ্তর। কংগ্রেস সভাপতি ও তাঁর মায়ের বিরুদ্ধে মোট ১০০ কোটি টাকারও বেশি কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

[সাহসী পদক্ষেপ রাহুলের, মহিলা কংগ্রেসের গুরুত্বপূর্ণ পদ পেলেন রূপান্তরকামী নেত্রী]

ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় এমনিতেই বেশ কিছুদিন ধরে অস্বস্তিতে গান্ধী পরিবার। এবার যোগ হল নয়া মাত্রা। রাহুল সোনিয়ার বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগে তদন্ত শুরু করার অনুমতি পাওয়ার পরই তাদের আয়ের হিসেব খতিয়ে দেখা শুরু করে আয়কর দপ্তর। সেই হিসেবে উঠে এসেছে ২০১১-১২ অর্থবর্ষ কোটি কোটি টাকা রোজগার গোপন করে গিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি এবং ইউপিএ চেয়ারপার্সন। অভিযোগ ২০১১-১২ অর্থবর্ষে রাহুলের রোজগার ছিল ১১৫ কোটি টাকার কাছাকাছি। আর সোনিয়ার রোজগার ছিল ১৫৫ কোটির কিছু বেশি। অথচ, খাতায় কলমে কংগ্রেস সভাপতি নিজের আয় দেখিয়েছিলেন মাত্র ৬৮ লক্ষ টাকা। আয়কর দপ্তরের অভিযোগ, কর ফাঁকি দেওয়ার জন্য বিপুল পরিমাণ রোজগারের এই তথ্য গোপন করে গিয়েছেন রাহুল সোনিয়ারা। এর পাশাপাশি কর ফাঁকির অভিযোগ উঠেছে কংগ্রেস নেতা অস্কার ফার্নান্ডেজের বিরুদ্ধেও। আয়কর দপ্তরের হিসেব অনুযায়ী প্রায় ৪৯ কোটি টাকার আয় গোপন করেছেন অস্কারও। আয়কর দপ্তরের হিসেব অনুযায়ী গান্ধী পরিবার মোট ৩০০ কোটিরও বেশি টাকার আয় গোপন করেছে, যার কর প্রায় ১০০ কোটি।

[‘ভারতে কৃষকরা কষ্টে আছেন’, ঘুরিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা গড়করির]

২০১১-১২ অর্থবর্ষে সনিয়া-রাহুলদের আয়কর তথ্য খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দুই সাংসদ আবেদন করেছিলেন। সেপ্টেম্বর মাসে সেই আবেদন খারিজ করে দেয় দিল্লি হাই কোর্ট। গান্ধীর পরিবারের বিরুদ্ধে তদন্ত করার ক্ষেত্রে বাধা দূর হয় আয়কর দপ্তরের। যদিও, দিল্লি হাই কোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ইতিমধ্যেই সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছেন কংগ্রেস নেতাদের আইনজীবীরা। আয়কর দপ্তরের এই রিপোর্ট এবার সর্বোচ্চ আদালতে পেশ হবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement