BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ফিদায়েঁ হামলার আশঙ্কা থেকেই ‘এয়ার স্ট্রাইক’, ঘোষণা ভারতের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: February 26, 2019 12:01 pm|    Updated: February 26, 2019 12:15 pm

It was an preemptive air strike: India

নন্দিতা রায়, নয়াদিল্লি: পাক-অধিকৃত কাশ্মীরে জঙ্গি ঘাঁটিতে হামলার কথা সরকারিভাবে ঘোষণা করল ভারত।মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠকে বিবৃতি দেন বিদেশমন্ত্রকের মুখ্যসচিব বিজয় গোখলে। মার্জিত ভাষায় তিনি সাফ জানান, ভবিষ্যতে ফিদায়েঁ হামলার আশঙ্কা থেকেই আগেভাগে সন্ত্রাসবাদীদের শিবির গুঁড়িয়ে দিয়েছে ভারত। তবে, বিমান হানায় যেন কোনও সাধারণ পাকিস্তানির মৃত্যু না হয়, তা নিশ্চিত করেছে বায়ুসেনা।   

[পাকিস্তানের ত্রাস কারগিলের ‘হিরো’ মিরাজ, জেনে নিন বিমানটি সম্পর্কে]

এদিন মিনিট দুয়েকের বিবৃতিতে স্বল্প এবং পরিষ্কার শব্দে গোখলে বুঝিয়ে দেন, ঢিল ছুঁড়লে পাটকেল খেতে হবে। কোনও মতেই দেশের নিরাপত্তার সঙ্গে আপস করবে না সরকার। পাকিস্তানকে কার্যত তুলোধোনা করে গোখলে বলেন, পাকিস্তানের জমি থেকে ভারতে সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে জইশ-ই-মহম্মদের মতো একাধিক জঙ্গি সংগঠন। এনিয়ে ভারতের তরফে বারবার প্রমাণ দেওয়ার পরও দায় এড়িয়ে গিয়ে জেহাদিদের মদত দিয়েছে পাকিস্তান। পুলওয়ামা হামলার মূলচক্রী মাসুদ আজহার বাহাওয়ালপুরে রয়েছে। ফের ভারতের মাটিতে আত্মঘাতী হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে জইশ। সমস্তটাই জানে পাকিস্তান। তবুও কোনও পদক্ষেপ করেনি ইমরান প্রশাসন। তাই, আগেভাগেই এয়ারস্ট্রাইক চালিয়ে জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়েছে ভারত। নিয়ন্ত্রণ রেখার পাশে পাহাড়ের চূড়ায় ছিল জঙ্গি শিবিরগুলি। সেখানে বোমাবর্ষণ করা হয়েছে। তবে, বিমান হানায় যেন কোনও সাধারণ পাকিস্তানির মৃত্যু না হয়, তা নিশ্চিত করেছে বায়ুসেনা। এদিন পাকিস্তানের কাছে ফের সন্ত্রাস বন্ধ করার আবেদন জানিয়েছেন গোখলে।

এদিন ভোররাতে পুলওয়ামা হামলার প্রতিশোধ নিয়ে বড়সড় প্রত্যাঘাত ভারতীয় সেনার। পাক অধিকৃত কাশ্মীরে সীমান্ত পেরিয়ে এয়ার স্ট্রাইক করে ভারতীয় বায়ুসেনা। সীমান্তরেখা পেরিয়ে পাকিস্তানে হামলা চালায় ভারতীয় বায়ুসেনার ১২টি অত্যাধুনিক মিরাজ-২০০০ যু্দ্ধবিমান। নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর জইশ-ই-মহম্মদের একাধিক জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে খবর সেনা সূত্রে। ঘুরিয়ে এই ঘটনার কথা স্বীকার করে নিয়েছে পাকিস্তানও। তিনি মেনে নিয়েছেন, মুজফ্ফরাবাদ এলাকা দিয়ে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে প্রবেশ করেছে ভারতীয় যুদ্ধবিমান । অবশ্য তাঁর পালটা দাবি, পাক সেনার সতর্কতায় ভারতের অভিযান ব্যর্থ হয়েছে। একটি মিরাজ-২০০০ ভেঙে পড়েছে বলেও দাবি তাঁর।

                                                           

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে