BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র-সহ কাশ্মীরে গ্রেপ্তার সন্দেহভাজন লস্কর জঙ্গি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 7, 2018 10:07 am|    Updated: January 7, 2018 2:41 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উপত্যকায় লস্কর-ই-তৈবার জঙ্গি সন্দেহে একজনকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। গ্রেপ্তারির পর ওই জঙ্গির কাছ থেকে একটি একে-৪৭ রাইফেল, ৩০টি গুলি-সহ প্রচুর অস্ত্রশস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার হয়েছে। আইইডি বিস্ফোরণে কর্তব্যরত চার পুলিশকর্মীর মৃত্যুর পরের দিন গ্রেপ্তারির ঘটনা ঘটল। সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে জম্মু ও কাশ্মীরের বান্দিপোড়া জেলার হাজিন্স বানওয়ারি এলাকায়।

[চালকহীন মেট্রোর মক রেকে স্টেশনের নামে ভুরিভুরি ভুল, আপনার চোখে পড়েছে?]

গতকালই রুটিন টহলে বেরিয়ে সোপর এলাকায় বাজারের মধ্যে আইইডি বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে চার পুলিশকর্মীর। বন্ধ দোকানের সামনেই ছিল আইইডি-র ফাঁদ। না বুঝেই পুলিশকর্মীদের গাড়ি সেখানে চলে যায়। মুহূর্তেই বিস্ফোরণ। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হল চার পুলিশকর্মীর। গাড়িটি বিস্ফোরমের ভয়াবহতায় দুমড়ে মুচড়ে যায়।ঘটনাস্থলে পড়ে থাকা জইশ জঙ্গির পোশাক বিস্ফোরণের দায় নিলেও মানতে নারাজ উপত্যকার পুলিশ। সাফ জবাব গোটা ঘটনা যাচাই করেই অভিযোগ আনা হবে।বিস্ফোরণে মৃত পুলিশকর্মীদের চিহ্নিত করা গিয়েছে। তাঁরা হলেন এএসআই ইরশাদ আহমেদ। তিনি ডোডা জেলার বাসিন্দা।মৃতদের তালিকায় রয়েছেন পুলিশকর্মী গুলাম নবি, পারভেজ আহমেদ ও মহম্মদ আমিন। তাঁরা যথাক্রমে বারামুলার রোহামা রাফিয়াবাদ, হান্দওয়ারার ভিলগাঁও ও কুপওয়ারার সোগামের বাসিন্দা।

উপত্যকার পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে সোপরে বনধ চলছিল। দোকানপাট গাড়ি ঘোড়া সবই বন্ধ ছিল। এমন পরিস্থিতিতেই রুটিন টহলে বেরিয়েছিল পুলিশের গাড়ি। বিস্ফোরণে ব্যবহৃত আইইডি অনেক শক্তিশালী ছিল। ২০১৫-র পর এই ধরনের আইইডির ব্যবহার আর হয়নি।এই ঘটনার পরেই উপত্যাকবাসীকে হিংসা এড়াতে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলার আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি।তিনি জানান, কর্তব্যরত অবস্থায় পুলিশকর্মীরা নিহত হয়েছেন। এটা দুঃখজনক।

[ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি, ব্ল্যাকমেল করে বছরভর ধর্ষণ যুবতীকে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement