BREAKING NEWS

৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  সোমবার ২৩ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘গো ব্যাক মোদি’, JNU ক্যাম্পাসে বিবেকানন্দের মূর্তি উন্মোচনের বিরোধিতায় বিক্ষোভের ডাক

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 12, 2020 12:06 pm|    Updated: November 12, 2020 12:07 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ছাত্র আন্দোলনে উত্তাল হতে পারে জেএনইউ (JNU)। বৃহস্পতিবার সন্ধেয় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে স্বামী বিবেকানন্দর মূ্র্তি উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ (JNUSU)। ইতিমধ্যে ‘গো ব্যাক মোদি’ (Go Back Modi) পোস্টারে ছয়লাপ ক্যাম্পাস চত্বর।

তীব্র ছাত্র বিরোধিতা সত্ত্বেও জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে তৈরি হয়েছে স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তি। এদিন সন্ধেয় ভারচুয়ালি সেই মূর্তি উদ্বোধন করবেন বলে টুইটারে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সন্ধে সাড়ে ছটায় সেই অনুষ্ঠান শুরু হবে। তার ঘণ্টাখানেক আগে থেকে বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক গিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়েক ছাত্র সংসদ। বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ পড়ুয়াদের জড়ো হওয়ার ডাক দিয়েছেন ছাত্র নেতারা। ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর বিরোধিতায় একটি পোস্টারও প্রকাশ করেছেন তাঁরা।

[আরও পড়ুন : ইতিহাসে প্রথমবার মন্দা ভারতীয় অর্থনীতিতে! ফাঁস রিজার্ভ ব্যাংকের চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট]

পোস্টারে ‘নরেন্দ্র মোদি গো ব্যাক’ স্লোগান লেখা হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রকের তরফ থেকে বেশকিছু প্রশ্নের জবাব চাওয়া হয়েছে। পোস্টারে আরও বলা হয়েছে, শিক্ষা বিরোধী, ছাত্র বিরোধী মোদি সরকারের বিরুদ্ধে এই জমায়েতের ডাক দেওয়া হয়েছে। এই জমায়েতকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাস চত্বর ফের উত্তাল হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে বিজেপিপন্থীদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচি নয়, বিবেকানন্দের মূর্তি তৈরির বিরোধিতা করছেন ওই পড়ুয়ারা। 

উল্লেখ্যে, ক্যাম্পাস চত্বরে এই মূর্তি তৈরির বিরোধিতা করেছিল বিশ্ববিদ্যালয়েক ছাত্র সংসদ। তাঁদের কথায়, “আমরা স্বামী বিবেকানন্দের ভাবনা-চিন্তার পরিপন্থী নই। কিন্তু এই মূর্তি তৈরির জন্য বিরাট অঙ্কের অর্থ খরচের বিরোধিতা করছি।” তাঁদের অভিযোগ, “মোদি সরকার আসার পর থেকেই শিক্ষা খাতে বরাদ্দ বাড়ায়নি। উলটে পড়ুয়াদের খরচ বেড়েছে। মোদি সরকার বরাবর জেএনআই-এর বিরোধিতা করেছে। দেশদ্রোহী হিসেবে চিহ্নিত করে দেওয়া হয়েছে। সে সমস্ত কিছুর বিরোধিতার করব আজ।” এই বিক্ষোভের জেরে জেএনইউ ক্যাম্পাসে নতুন করে উত্তেজনা ছড়াতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

[আরও পড়ুন : সেনা অভিযানের জের, ৪ সঙ্গী-সহ মেঘালয়ে আত্মসমর্পণ উলফার শীর্ষ নেতার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement