BREAKING NEWS

১৭ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  সোমবার ১ জুন ২০২০ 

Advertisement

যাত্রাশুরু কান্নুরের, ৪ নম্বর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পেল কেরল

Published by: Bishakha Pal |    Posted: December 9, 2018 7:48 pm|    Updated: December 9, 2018 7:48 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জনগণের জন্য খুলে দেওয়া হল কেরলের কান্নুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। এই নিয়ে মোট চারটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পেল রাজ্য। কেরলের আর তিনটি বিমানবন্দর হল তিরুবনন্তপুরম, কোচি ও কোঝিকোড়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুরেশ প্রভু ও কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন একসঙ্গে রবিবার বিমানবন্দরের উদ্বোধন করেন।

বিমানবন্দরটি তৈরি করতে খরচ পড়েছে ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা। প্রায় ২ হাজার একর জমির উপর তৈরি হয়েছে এটি। একই সময়ে প্রায় ২ হাজার যাত্রী ধারণে সক্ষম এই বিমানবন্দর। বছরে প্রায় ১৫ লক্ষ আন্তর্জাতিক যাত্রী এই বিমানবন্দর দিয়ে যাতায়াত করতে পারবেন। আপাতত এর রানওয়ের দৈর্ঘ্য ৩ হাজার ৫০ মিটার। পরে এটি ৪ হাজার মিটার করে দেওয়া হবে। এই বিমানবন্দর থেকে প্রথমে ছাড়বে এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের বিমান। ১৮০ জন যাত্রীকে নিয়ে আবু ধাবি পর্যন্ত যাবে বিমানটি। প্রথমদিকে সংযুক্ত আরব আমিরশাহী, ওমান ও কাতারে বিমান যাতায়াত করবে এখান থেকে। অন্তর্দেশীয়র মধ্যে বিমান যাবে হায়দরাবাদ, বেঙ্গালুরু ও মুম্বইয়ে।

সমকামিতা ‘জেনেটিক ডিসঅর্ডার’! রোগীদের ইলেকট্রিক শক দিচ্ছেন চিকিৎসক ]

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ভিএস অচ্যুতানন্দ। যে জমিতে বিমানবন্দরটি তৈরি হয়েছে সেটি তাঁর আমলেই নেওয়া হয়েছিল। কান্নুর ও কাসারগড়-সহ রাজ্যের বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্রে পর্যটক টানতে এই বিমানবন্দরটি সাহায্য করবে এই বিমানবন্দর। আশা কেরল সরকারের। তবে অনুষ্ঠানটি ঘিরে রবিবার বিতর্ক তৈরি হয়। বিরোধী দলগুলি অনুষ্ঠানটি বয়কট করে। বিতর্কের সূত্রপাত অক্টোবরে। তখন কান্নুর এসেছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। বিমানবন্দরে নেমে তিনি বলেছিলেন, ‘অভিনন্দন। উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে।’ এটাই কেরল সরকারকে অস্বস্তিতে ফেলে দেয়। এই নিয়ে কেরল সরকারের তরফ থেকে অর্থ মন্ত্রককে জানানো হয়, রাজ্যের পরিকাঠামোর অপমান করেছেন অমিত শাহ। পরে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানায়, রাজ্য সরকার নয়, অমিত শাহ অপমান করেছেন তাদের। তাঁর বিমান এই বিমানবন্দরে নামতে দেওয়া উচিত হয়নি।

রাম মন্দিরের দাবিতে দিল্লিতে দেড় লক্ষ মানুষের জমায়েত, স্তব্ধ রাজধানী ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement