২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ৯ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘ফ্লোর টেস্ট’-এর আগে সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা কংগ্রেসের, কর্ণাটকে প্রোটেম স্পিকার বোপ্পাইয়াই

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 19, 2018 12:53 pm|    Updated: May 19, 2018 12:53 pm

Karnataka Election 2018: Sc rejects cong plea against protem speaker

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আস্থা ভোটের আগে অক্সিজেন পেল বিজেপি। কর্ণাটকের প্রোটেম স্পিকার থাকছেন কেজি বোপ্পাইয়াই। রাজ্যপালের সিদ্ধান্তেই সিলমোহর দিল। আস্থা ভোটের জন্য বোপ্পাইয়াকে প্রোটেম স্পিকার নিয়োগ করেছিলেন কর্ণাটকের রাজ্যপাল বাজুভাই বালা। বালার এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয় কংগ্রেস। কিন্তু রাজ্যপালের সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আদালত৷ শুনানি চলাকালীন আদালতের পর্যবেক্ষণ,‘আইন করে রাজ্যপালকে কোনও সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করা যায় না, আদালত রাজ্যপালকে কোনও নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে প্রোটেম স্পিকার হিসেবে নিয়োগ করতে বাধ্য করতে পারে না’

[অশান্ত কাশ্মীরে পা রাখলেন মোদি, জোরদার নিরাপত্তা]

৮ বারের কংগ্রেস বিধায়ক আরভি দেশপাণ্ডেকে উপেক্ষা করে কেন পাঁচবারের বিধায়ক বোপ্পাইয়াকে প্রোটেম স্পিকার হিসেবে বেছে নিলেন রাজ্যপাল বাজুভাই বালা? প্রশ্ন তুলেছিল রাহুল গান্ধীর দল৷ বোপ্পাইয়াকে নিয়ে কংগ্রেসের আপত্তির মূল কারণ অবশ্য ছিল পুরোপুরি রাজনৈতিক৷ এর আগে ২০১০ সালে যখন আস্থা ভোট হয়েছিল তখন ইয়েদুরাপ্পাকে জিতিয়ে দিতে মোট ১৬ বিধায়কের বিধায়ক পদ অনৈতিকভাবে বাতিল করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল বোপ্পাইয়ার বিরুদ্ধে৷ কংগ্রেসের আশঙ্কা, ইয়েদুরাপ্পাকে জিতিয়ে দিতে ২০১০ সালের মতোই পক্ষপাতিত্ব করতে পারেন বোপ্পাইয়া৷ তাই আস্থা ভোট প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছ্বতার দাবিতে আদালতে আবেদন করেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা তথা আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি এবং কপিল সিব্বল৷ এদিন কংগ্রেসের সেই আবেদনের বিপক্ষেই রায় দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট বোপ্পাইয়াকেই বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নিল৷

[কর্ণাটকের মসনদে জোট না বিজেপি? উত্তর মিলবে গোধূলি লগ্নে]

আদালতের এই রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন প্রাক্তন অ্যাটর্নি জেনারেল তথা বিজেপির আইনজীবী মুকুল রোহতগি৷ রোহতগির দাবি, কংগ্রেস অনৈতিকভাবে সিদ্দারামাইয়াকে তাঁর কুর্সি থেকে সরাতে চাইছিল৷ ভয় পেয়ে আস্থা ভোট প্রক্রিয়া রুখতে চাইছিল কংগ্রেস, যা খারিজ করেছে সর্বোচ্চ আদালত৷‘ অন্যদিকে, কংগ্রেসের আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি বলছেন, ‘তাঁরা আদালতে গিয়েছিলেন স্বচ্ছ্বতার দাবিতে, তাদের সেই দাবি মেনে নিয়েছেন বিচারপতিরা৷’ কংগ্রেস শিবিরের দাবি, আদালত তাদের দাবি মেনেও নিয়েছিল৷ কিন্তু দাবি মেনে পদক্ষেপ করতে হলে নোটিস পাঠাতে হত রাজ্যপালকে, যা সময় সাপেক্ষ, সেক্ষেত্রে কোনওভাবেই আজ বিকেল চারটেয় আস্থা ভোট নেওয়া সম্ভভ হত না৷ আস্থাভোট পিছিয়ে যাক তা কোনওভাবেই চাইছে না কংগ্রেস, তাই কার্যত বাধ্য হয়েই বোপ্পাইয়ার অপসারণের বিকল্প হিসেবে আস্থা ভোট প্রক্রিয়ার স্বচ্ছ্বতার দাবি তোলেন কংগ্রেসের আইনজীবীরা৷ বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে, পুরো ভোট প্রক্রিয়া সরাসরি বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমে সম্প্রচারের নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট৷ এর আগেই বিজেপির গোপন ব্যালটে ভোটের দাবি খারিজ হয়েছে, এবার সরাসরি ভোট প্রক্রিয়া সম্প্রচারিত হল বিধায়করা ‘ক্রস ভোটিং’ করতে পারবেন না বলে দাবি করছে বিরোধী শিবির৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে