BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীকে হিন্দু-বিদ্বেষী বলে আক্রমণ অমিত শাহর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 10, 2018 10:46 am|    Updated: January 10, 2018 10:46 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কর্ণাটক সরকারকে হিন্দু-বিদ্বেষী বলে বুধবার আক্রমণ করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। কর্ণাটকের চিত্রদুর্গায় ‘পরিবর্তন যাত্রা’র সূচনা করে অমিত শাহ বলেন, ‘কর্ণাটক সরকার হিন্দু বিদ্বেষী সরকার। মুখ্যমন্ত্রী ভোট ব্যাঙ্কের রাজনীতি করছেন।’

[এক ব্র্যান্ডের পণ্যের খুচরো ব্যবসায় ১০০% বিদেশি লগ্নির অনুমোদন মন্ত্রিসভার]

শাহ আরও জানান, কেন্দ্রের নীতি নিয়ে সাধারণ মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া। তিনি এই ভুল ধারণা ভাঙতেই রাজ্যে এসেছেন বলে এদিনের সভা থেকে দাবি করেন শাহ। তিনি বলেন, ‘এখানে এসেছি মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্নের জবাব দিতে। উনি প্রশ্ন তুলেছিলেন, কেন্দ্র কী করেছে কর্ণাটকের জন্য?’ এরপরই পরিসংখ্যান তুলে ধরে শাহ বলেন, ‘ইউপিএ আমলে ত্রয়োদশ অর্থ কমিশন কর্ণাটকের জন্য ৮৮,৫৮৩ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়। বিজেপির আমলে চতুর্দশ অর্থ কমিশন রাজ্যের জন্য ২ লক্ষ ১৯ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে।’

পালটা মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি প্রশ্ন ছুড়ে দেন অমিত শাহ। জানতে চান, মুখ্যমন্ত্রী হয়ে রাজ্যের কোন বেহাল দশার দিকে নজর দিয়েছেন সিদ্দারামাইয়া? তাঁর বক্তব্য, ‘কেন্দ্রের সব টাকা কোথায় গেল? গ্রামে কি পৌঁছেছে সেই টাকা?’ কংগ্রেস সব টাকা লুট করেছে বলে সরব হয়েছেন শাহ। কংগ্রেসের যে নেতাদের আগে কাঁচা বাড়ি ছিল, তারাই এখন চারতলা বাড়ি বানিয়ে, গাড়ি হাঁকিয়ে ঘরে বেড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ শাহের। সিদ্দারামাইয়াও অবশ্য মুখ বুজে বসে নেই। তাঁর দাবি, বিজেপি, আরএসএস, বজরং দল রাজ্যের শান্তি শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নষ্ট করছে। রাজ্য সরকার এই প্রবণতা বরদাস্ত করবে না বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement