৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিজেদের জায়গা ছেড়ে দূরে গা ঢাকা দিয়েও স্বস্তি নেই৷ কর্ণাটক জটে আরও একপ্রস্ত নাটক৷ এবার মু্ম্বইয়ের বিলাসবহুল হোটেল থেকে একযোগে চিঠি লিখে নিরাপত্তাহীনতার কথা জানালেন দলত্যাগী ‘বন্দি’ বিধায়করা৷ মুম্বই পুলিশকে লেখা চিঠিতে তাঁরা উল্লেখ করেছেন, কংগ্রেস নেতারা বারবার তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছেন৷ বোঝাতে চাইছেন, কংগ্রেসকে ছেড়ে তাঁদের ভবিষ্যৎ নিরাপদ নয়৷ আর এসব শুনেই ১৪ জন সদ্যপ্রাক্তন জেডিএস বিধায়কের মনে হয়েছে,মুম্বইয়ের পাঁচাতারা হোটেলে থেকেও তাঁরা নিরাপদ বোধ করছেন না৷

[আরও পড়ুন: হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল পার্কের রাইড, মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মৃত ২]

সপ্তাহ খানেক ধরে সাংবিধানিক সংকটে কর্ণাটক বিধানসভা৷ জেডিএস-কংগ্রেস জোট ভাঙার মুখে৷ মু্খ্যমন্ত্রী কুমারস্বামীর বিরুদ্ধে তোপ দেগে পদ ছেড়েছেন ১৪জন জেডিএস বিধায়ক৷ তাঁদের নিরাপদে রাখতে বেঙ্গালুরু থেকে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে মু্ম্বাইতে৷ পওয়া এলাকায় একটি পাঁচতারা হোটেলে আপাতত ‘বন্দি’ তাঁরা৷ গত সপ্তাহেই কর্ণাটক কংগ্রেসের শীর্ষ নেতা ডিকে শিবকুমারের সেখানে যাওয়া নিয়ে একপ্রস্ত ঝঞ্ঝাট হয়েছে৷ ওই হোটেলে বুকিং থাকা সত্ত্বেও তাঁকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ৷ এমনকী হোটেলের বাইরে শিবকুমার অনুগামীদের সঙ্গে পুলিশের বাদানুবাদও বাধে৷ কর্ণাটক বিধানসভার জট কাটাতে মামলা গড়ায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত৷ বলা হয়, আস্থা ভোটের মাধ্যমে নিজেদের শক্তি প্রমাণ করতে হবে কুমারস্বামীকে৷ এই পরিস্থিতিতে বিরোধীরা অনাস্থা প্রস্তাব পেশের আগেই মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী মঙ্গলবার আস্থা ভোটের ডাক দিয়েছেন৷
তার আগে সোমবার সকাল সকালই পদত্যাগী বিধায়করা মুম্বই পুলিশকে চিঠিতে লিখলেন, ‘আমরা কোনও কংগ্রেস নেতার সঙ্গে দেখা করতে চাই না৷ শিবকুমার, জি পরমেশ্বর, মল্লিকার্জুন খাড়গে এমনকী গুলাম নবি আজাদও আমাদের ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য যোগাযোগ করছেন৷ আমাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে হুঁশিয়ারি দিচ্ছেন মহারাষ্ট্রের কংগ্রেস নেতারাও৷ এই পরিস্থিতিতে আমরা বেশ বিপন্ন বোধ করছি৷’

k'taka-letter
এই চিঠিতে যে ক’জনের সই রয়েছে, তাঁদের মধ্যে একটি নাম দেখে অবাক হয়েছেন অনেকেই৷ তিনি বিধায়ক এমটিবি নাগরাজ৷ ইনি শনিবারই কুমারস্বামী এবং কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়ার সঙ্গে দেখা করে দলে ফিরতে চেয়েছিলেন৷ কিন্তু সূত্রের খবর, রবিবারই তাঁকে কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা বিএস ইয়েদুরাপ্পার ব্যক্তিগত সচিব সন্তোষের সঙ্গে দেখা গিয়েছিল বেঙ্গালুরু বিমানবন্দরে৷ সেখান থেকে মুম্বইয়ে নেমেই তিনি জানান, পদত্যাগপত্র নিয়ে তিনি নিজের মন বদলাননি৷ সোমবার মুম্বই পুলিশকে লেখা চিঠিতে তাঁরও সই রয়েছে৷এই পরিস্থিতিতে কর্ণাটক বিধানসভার জট কাটাতে মঙ্গলবার আস্থা ভোটের দিকে তাকিয়ে জেডিএস তথা কুমারস্বামী৷

[আরও পড়ুন: ক্রায়োজেনিক ইঞ্জিনে জ্বালানি লিক, চাঁদমামার দেশে যাওয়া হল না চন্দ্রযানের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং