×

৮ ফাল্গুন  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৮ ফাল্গুন  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সন্ত্রাসে সরাসরি মদত এবং সন্ত্রাসবাদীদের আশ্রয় ও রসদ জোগানোর অভিযোগে আট জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করল জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ। এদের মধ্যে মধ্যে বছর চল্লিশের আসিফ সুলতান হিজবুল মুজাহাদিনকে বহু দিন ধরে গোপনে সাহায্য করছিল। তাদের হয়ে খবরাখবর বিভিন্ন জায়গায় পৌঁছে দিত। এই সংক্রান্ত অকাট্য প্রমাণ ও সাক্ষী রয়েছে বলে দাবি করেছে রাজ্য পুলিশ। আগস্ট মাসে বাতামালুতে পুলিশের একটি টহলদারি দলের উপর এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়ে গা ঠাকা দেয় হিজবুল জঙ্গিরা। নিহত হন কনস্টেবল পারভেজ আহমেদ।

[সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলিকে ‘ধ্বংস’ করছেন মোদি! পিএমও-র টুইট ভাইরাল]

ওই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সরকারি মেডিক্যাল কলেজের কর্মী বিলাল আহমেদ ভাট, স্থানীয় বাসিন্দা শাজিয়া, মহম্মদ শফিক ভাট, ওয়াসিম খানের নাম রয়েছে চার্জশিটে। তারা এখন জেল হেফাজতে। এছাড়া চার্জশিটে নাম রয়েছে পলাতক তিন হিজবুল জঙ্গি আব্বাস শেখ, আকিব নাজির, তেহসিন আহমেদের নামও। এদের সবার বিরুদ্ধেই জামিন অযোগ্য ধারায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছিল। অভিযুক্ত আট জনই ইউএপিএ-তে (বেআইনি কাজকর্ম প্রতিরোধমূলক আইন) অভিযুক্ত।

[ফাঁস রাফালে সংক্রান্ত গোপন নথি, ‘মোদি চোর’ আক্রমণ রাহুলের]

শাজিয়া এবং ওয়াসিম খানকে টানা জেরা করেই গোটা চক্রান্তের পর্দা ফাঁস হয়। ১৭মে ডাল লেকের সামনে পুলিশ কনভয়ে হামলা চালিয়ে এরাই প্রচুর অস্ত্রশস্ত্র ছিনতাই করতে জঙ্গিদের সাহায্য করেছিল। তদন্তে সামনে এসেছে, ফেসবুক মেসেজের সাহায্যে এবং একাধিক হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ তৈরি করে আজাদ কাশ্মীরের জন্য প্রচার চালাচ্ছিল সাংবাদিক সুলতান। সে হিজবুলের হয়ে সেনার বিরুদ্ধে হামলা চালানোর বার্তা প্রচার করছিল। সুলতানকে অবিলম্বে মুক্তি দিতে জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিকের কাছে আবেদন জানিয়েছিল আন্তর্জাতিক সংগঠন কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টস। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে সরকার।যে কাশ্মীরে সুজাত বুখারির মতো সাংবাদিক জঙ্গিদের হাতে প্রাণ দিয়েছেন, সেখানে এই সাংবাদিকের কীর্তিতে নিন্দার ঝড় উপত্যকাজুড়ে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং