২  ভাদ্র  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নূপুর শর্মাকে খুনের ‘নিদান’ দেওয়ার পরই গ্রেপ্তার আজমেঢ় শরিফের খাদিম

Published by: Biswadip Dey |    Posted: July 6, 2022 9:04 am|    Updated: July 6, 2022 9:04 am

Khadim of Ajmer Dargah arrested after allegedly giving a provocative statement against Nupur Sharma। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নুপূর শর্মাকে (Nupur Sharma) নিয়ে হিংসাত্মক মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন আজমেঢ় দরগার (Ajmer Dargah) খাদিম সলমন চিস্তি। মঙ্গলবার গভীর রাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করল আজমের পুলিশ। আজমেরের এএসপি বিকাশ সাঙ্গওয়ান একথা জানিয়েছেন।

মঙ্গলবারই ভাইরাল হয়ে দিয়েছিল আজমের দরগার খাদিমের ওই ভিডিও। যে ভিডিওয় তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, “আমার জন্মদাত্রী মায়ের নামে শপথ করে বলছি, নূপুর শর্মাকে সবার সামনে গুলি করে মারব। আমার ছেলেমেয়েদের নামে বলছি, যদি কেউ নূপুর শর্মার মাথা কেটে আমার কাছে নিয়ে আসে, তাহলে আমার বাড়িটা তাকে দিয়ে দেব। এটা সলমনের প্রমিস।”

[আরও পড়ুন: পুরীতে বলরাম, সুভদ্রার রথের চাকায় ফাটল! ‘অশুভ ইঙ্গিত’ মনে করছেন ভক্তরা]

ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যাওয়ার পর বিতর্ক ক্রমশই বাড়তে থাকে। তারপর থেকেই নিখোঁজ হয়ে যান ওই ব্যক্তি। তাঁর সন্ধানে তল্লাশি চালাতে শুরু করে পুলিশ। অবশেষে মঙ্গলবার রাত ১২টা ৪৫ মিনিটে গ্রেপ্তার করা হয় সলমনকে।

গত সপ্তাহেই রাজস্থানে (Rajasthan) নূপুর শর্মাকে সমর্থন করার জেরে এক হিন্দু দরজিকে খুন করে দুই দুষ্কৃতী। সেই ঘটনার আগেও একইভাবে ভিডিও বানিয়ে দরজিকে হুমকি দিয়েছিল দুই অভিযুক্ত। সলমনের ভিডিও ভাইরাল হতেই আলওয়ার গেট থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। আজমেঢ়ের এএসপি জানিয়ে দেন, এমন ভিডিও বানানোর অভিযোগে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাঁকে বলতে শোনা যায়, “ভিডিওতে সলমনকে মত্ত অবস্থায় দেখা গিয়েছে। আপাতত তাঁকে খোঁজার চেষ্টা চলছে।” অবশেষে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হল। জানা গিয়েছে, এর আগেও বিভিন্ন কারণে পুলিশের কাছে সলমনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল।

[আরও পড়ুন: ‘কালী’ ছবির পোস্টার বিতর্কে উত্তাল দেশ, পরিচালক লীনার বিরুদ্ধে দায়ের FIR, চেনেন তাঁকে?]

উল্লেখ্য, রাজস্থানের উদয়পুরে (Udaipur) যুবকের মুণ্ডচ্ছেদের ঘটনায় তোলপাড় দেশ। এই পরিস্থিতিতে হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা করে সকলকে শান্তি বজায় রাখার আরজি জানাতে দেখা গিয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। পাশাপাশি কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী কিংবা আপ সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়ালের মতো নেতাও হত্যাকাণ্ডের নিন্দায় সরব হন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে