BREAKING NEWS

১০ আষাঢ়  ১৪২৮  শুক্রবার ২৫ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাজ্যসভার সাংসদ পদে মনোনীত দেশের বিশিষ্ট আইনজীবী মহেশ জেঠমালানি

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 1, 2021 9:58 am|    Updated: June 1, 2021 1:10 pm

Mahesh Jethmalani, son of former minister and lawyer Ram Jethmalani nominated as MP of Rajya Sabha | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইনের আঙিনা ছেড়ে এবার সংসদীয় রাজনীতির বৃত্তে। রাজ্যসভায় মনোনীত হলেন বর্ষীয়ান আইনজীবী মহেশ জেঠমালানি(Mahesh Jelthmalani)। সোমবার সংসদের উচ্চকক্ষে তাঁকে মনোনীত করা হল। রাজ্যসভার (Rajya Sabha)সাংসদ হিসেবে ২০২৪ সালের মে মাস পর্যন্ত এই পদে থাকবেন তিনি।

এই বছরের আগস্টে ৬৫ বছরে পা দেবেন দেশের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী তথা আইনজীবী রাম জেঠমালানির (Ram Jethmalani) পুত্র মহেশ। অপরাধ  সংক্রান্ত মামলা এবং জনসাধারণকে আইনি সাহায্য পাইয়ে দিতে রাম জেঠমালানির লড়াই এবং অবদান নিঃসন্দেহে স্মরণীয়। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন পাশের পর, ১৯৮০ সালে ব্রিটিশ বার কাউন্সিল থেকে ব্যারিস্টার হন তিনি। গত ৪০ বছরে একাধিক মামলায় সাফল্য পেয়েছেন মহেশ জেঠমালানি। কর্মজীবনের শুরুতে মহারাষ্ট্রে তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী এ আর আন্তুলে মামলায় তাঁর সওয়াল আইনজীবী মহলে প্রশংসিত হয়েছিল। মহেশ জেঠমালানির রাজনৈতিক জীবন অবশ্য আজকের নয়। তিনি বিজেপির (BJP)সঙ্গে সক্রিয়ভাবে যুক্ত ছিলেন। দলের জাতীয় কর্মসমিতির (National Executive) সদস্য থাকাকালীন ২০১২ সালে তৎকালীন সভাপতি নীতীন গড়কড়ির সঙ্গে সংঘাতের জেরে পদ ছাড়েন মহেশ।

[আরও পড়ুন: আশঙ্কাই সত্যি, প্রায় চার দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ সংকোচন জিডিপিতে]

সম্প্রতি আর্থিক দুনীর্তি কাণ্ডে মুম্বইয়ের (Mumbai) প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার পরমবীর সিংয়ের আইনজীবী হিসাবে মহারাষ্ট্র সরকারের বিরুদ্ধে মামলা লড়েছেন তিনি। রাজ্যসভায় মহেশের মনোনয়নের ব্যাপারে তাঁর সহকর্মী আইনজীবী প্রণব ভেদকা জানান, ‘‘সংসদে সম্পদ হতে পারেন মহেশ জেটমালানি। বিশেষ করে ওঁর আইনি পরামর্শ দেশের পক্ষে খুবই কার্যকরী হবে।’’  সম্প্রতি রাজ্যসভার বিজেপি সাংসদ তথা বিশিষ্ট স্থপতি-ভাস্কর রঘুনাথ মহাপাত্র করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন। সেই আসন খালি হওয়ার জেরে রাজ্যসভায় মনোনীত করা হল মহেশ জেঠমালানিকে। এছাড়া বঙ্গভোটের আগে রাজ্যসভায় খালি হয়েছিল একটি আসন। সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত।

[আরও পড়ুন: বন্ধ হচ্ছে না সেন্ট্রাল ভিস্তার নির্মাণকাজ, মামলাকারীকেই জরিমানা দিল্লি হাই কোর্টের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement