২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

গণছাঁটাইয়ের মধ্যে মেটা ইন্ডিয়ার প্রধান পদে সন্ধ্যা দেবনাথন, কে এই ভারতীয়?

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: November 18, 2022 12:28 pm|    Updated: November 18, 2022 12:28 pm

Meet Sandhya Devanathan, new head of META India | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একধাক্কায় বিপুল সংখ্যক কর্মীকে ছাঁটাই করেছে মেটা (META)। এহেন পরিস্থিতিতে ভারতে মেটার প্রধান পদে বসতে চলেছেন সন্ধ্যা দেবনাথন। বৃহস্পতিবার এই কথা ঘোষণা করেছে মেটা। প্রসঙ্গত, গত ৩ নভেম্বর পদত্যাগ করেছিলেন মেটার ইন্ডিয়ার প্রধান অজিত মোহন। সেই পদেই বসতে চলেছেন সন্ধ্যা (Sandhya Devanathan)। বর্তমানে তিনি মেটার দক্ষিণ এশিয়া শাখায় গেমিং বিভাগের প্রধানের দায়িত্বে রয়েছেন। আগামী জানুয়ারি মাসে তিনি মেটা ইন্ডিয়ার দায়িত্ব নেবেন বলে জানা গিয়েছে।

কে এই সন্ধ্যা দেবনাথন? মেটার তরফে ভারতের প্রধান হিসাবে সন্ধ্যার নাম ঘোষণা করতেই এই প্রশ্ন ঘোরাফেরা করছে নানা মহলে। জানা গিয়েছে, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে অন্ধ্র বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিটেক করেছেন সন্ধ্যা। তারপরে এমবিএ করে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়েও পড়াশোনা করেছেন। কেরিয়ারের শুরুতে সিটিগ্রুপ ও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার ব্যাঙ্কে কাজ করেছেন সন্ধ্যা। বেশ কয়েকটি নামী সংস্থার ডিরেক্টর হিসাবেও দায়িত্ব সামলেছেন।

[আরও পড়ুন: ‘মৌলবাদের সমর্থকদের কোনও দেশে কোনও স্থান নেই’, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে গর্জন মোদির]

২০১৬ সালে মেটায় যোগ দেন সন্ধ্যা। তৎকালীন ফেসবুকের সিঙ্গাপুর শাখায় যোগ দিয়ে সুনামের সঙ্গে কাজ করেন তিনি। সন্ধার হাত ধরেই সিঙ্গাপুর ও ভিয়েতনামে নিজেদের ভিত শক্ত করে মার্ক জুকারবার্গের সংস্থা। ২০২০ সালে তাঁকে সমগ্র দক্ষিণ এশিয়ার গেমিং শাখার প্রধানের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এখনও সেই পদেই বহাল রয়েছেন তিনি। আগামী জানুয়ারি মাসে মেটা ইন্ডিয়ায় প্রধান হিসাবে দায়িত্ব নেবেন তিনি। সংস্থার কর্তৃপক্ষের মতে, ব্যবসায়িক লাভের সঠিক মূল্যায়ন করার ক্ষেত্রে সন্ধ্যার বিশেষ দক্ষতা রয়েছে। তাছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়ায় কোন ধরনের সুবিধা পেলে ইউজাররা খুশি হবেন, সেটাও খুব ভালভাবে বুঝতে পারেন সন্ধ্যা।

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন ধরেই বিপুল সংখ্যক কর্মীকে ছাঁটাই করছে মেটা। এক ধাক্কায় ১১ হাজারেরও বেশি কর্মী ছাঁটাই করেছে তারা। যা সংস্থার মোট কর্মী সংখ্যার ১৩ শতাংশ। যার পর মেটার চিফ এক্সিকিউটিভ মার্ক জুকারবার্গ একটি ব্লগ পোস্টে দাবি করেন, সংস্থার উন্নতির জন্যই ঐতিহাসিক কর্মী ছাঁটাইয়ের পদক্ষেপ করেছেন। গণছাঁটাইয়ের পর দুঃখ প্রকাশ করেন জুকারবার্গ। তবে বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ আধিকারিক নিজে থেকেও ইস্তফা দিয়েছেন। তাঁরা মেটার প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থাগুলিতে যোগ দেবেন বলেই শোনা যাচ্ছে।

[আরও পড়ুন:দাবি আদায়ের পথে হাঁটতে দেশজুড়ে ধর্মঘটে কর্মী সংগঠন, ব্যাংকিং পরিষেবা মিলবে না শনিবার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে