১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

CAA বিরোধী আন্দোলন ঘিরে এবার উত্তপ্ত মেঘালয়, সংঘর্ষে মৃত ১

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 29, 2020 2:29 pm|    Updated: February 29, 2020 2:29 pm

Meghalaya: Mobile Internet suspended after 1 dead in clash over CAA

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তর-পূর্ব দিল্লির হিংসা পুরোপুরি থামার আগেই উত্তপ্ত হল মেঘালয়। CAA এবং ইনার লাইন পারমিট নিয়ে অশান্তির জেরে ইতিমধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন একজন। অশান্তি রুখতে উত্তর-পূর্বের এই রাজ্যের ৪৮ ঘণ্টার জন্য ছ’টি জেলায় ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। জারি করা হয়েছিল সাময়িক কার্ফুও। রাজ্যে শান্তি বজায় রাখতে মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা এবং রাজ্যপাল তথাগত রায় আবেদন জানিয়েছেন।

[আরও পড়ুন : ফোনে প্রেমালাপ! সন্দেহের বশে নাবালিকাকে নেড়া করে ‘শাস্তি’ দিল পরিবার]

শুক্রবার থেকেই খাসি পাহাড়ের কোলের এই রাজ্যে অশান্তি ছড়াতে শুরু করে। জানা গিয়েছে, শুক্রবার দুপুরে CAA এবং ইনার লাইন পারমিট নিয়ে খাসি ছাত্র সংগঠন (KSU)-এর বৈঠক ছিল। এই বৈঠকের পরই উত্তেজনা ছড়ায়। রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় খাসি ছাত্র সংগঠন এবং অ-জনজাতি সম্প্রদায়ের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। বেশকিছু সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর, গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। একটি খড়ের গাদাও আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় বলে খবর। সংঘর্ষের জেরে শিলঙে একজন প্রাণ হারান। তিনি KSU-এর সদস্য বলে খবর। নাম লুরসাই হেনিওয়াতা। সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে কয়েকজন পুলিশকর্মী গুরুতর জখম হয়েছেন।

[আরও পড়ুন : ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে পোস্ট করে শিলচরে ধৃত বাঙালি অধ্যাপক]

এরপরই ইস্ট জয়ন্তিয়া হিলস, ওয়েস্ট জয়ন্তিয়া হিলস, ইস্ট খাসি হিলস, রি ভোই, ওয়েস্ট খাসি হিলসের মতো ছ’টি জেলায় ৪৮ ঘণ্টার জন্য মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধ করে দেওয়া হয়। এমনকী শিলঙ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় শুক্রবার রাত ১০টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত কার্ফুও জারি করা হয়েছে। গোটা ঘটনায় মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা খোঁজখবর নিতে শুরু করেছেন। পাশাপাশি রাজ্যে শান্তি বজায় রাখার জন্য আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যপাল। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে