BREAKING NEWS

৯ মাঘ  ১৪২৮  রবিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

প্যারিস জলবায়ু চুক্তি কার্যকর করবে ভারত

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 26, 2016 10:19 am|    Updated: September 26, 2016 10:19 am

Modi declares to ratify Paris Agreement

নন্দিতা রায়: ২ অক্টোবর মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিনেই ভারত জলবায়ু বদল সংক্রান্ত ‘সিওপি ২১’ (কনফারেন্স অফ পার্টিস-২১)  প্যারিস চুক্তি কার্যকর করবে বলে ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ এই চুক্তি অনুসারে বিশ্বের প্রতিটি দেশ নিজেদের কার্বন উৎপাদন কম করবে বলে উল্লেখ রয়েছে৷ মোদির এই ঘোষণার ফলে দূষণ নিয়ন্ত্রণের পক্ষে থাকা উন্নত দেশগুলি ভারতের ‌এই উদ্যোগকে সাধুবাদ দেবে৷ অন্যদিকে, বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ আজ সোমবার রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভায় ভাষণ দেবেন৷ তার ঠিক আগের দিন শনিবার কোঝিকোড়ে বিজেপির জাতীয় পর্যদের বৈঠকে মোদির এই ঘোষণা তাৎপর্যপূর্ণ৷ পন্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায় প্রকৃতির সঙ্গে ভাব বিনিময় ও সবুজ রক্ষার কথা বলতেন৷ তাঁর জন্মশতবার্ষিকীতে এই ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী৷

‘গ্লোবাল ওয়ার্মিং’ বা বিশ্ব উষ্ণায়ন বাড়লে তাতে যে সকলেই সমস্যায় পড়বে এদিন মোদির ভাষণে সে বিষয়টিও উঠে এসেছে৷ সারা বিশ্ব তো বটেই সঙ্গে উপকূল এলাকাও সতর্ক হয়ে রাস্তা খুঁজছে যাতে গ্লোবাল ওয়ার্মিং আর না বাড়ে৷ কারণ জলস্তর বাড়লে উপকূলবর্তী রাজ্য কেরলও বড় সমস্যার মুখে পড়বে বলে জানান তিনি৷

গতবছরের ডিসেম্বর মাসে প্যারিসে জলবায়ু বদল সংক্রান্ত বৈঠকে বিশ্বের ৯০টি দেশ গ্লোবাল ওয়ার্মিং কমাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সহমত হয়৷ আমেরিকাসহ বিশ্বের প্রায় ৬০টি দেশ প্যারিস চুক্তিকে কার্যকর করার কাজ শুরু করেছে৷ এশিয়ার মধ্যে ভারত ও চিন এই কাজ তেমন গুরুত্ব দিয়ে শুরু করেনি৷ ভারত এতদিন পর্যন্ত দেশের উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, এই আশঙ্কা থেকেই কার্বন নিঃসরণ নিয়ে কোনও কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়নি৷ এদিন জলবায়ু চুক্তিতে স্বাক্ষর করার কথা ঘোষণা করেন মোদি একইসঙ্গে উন্নত ও প্রথম বিশ্বের দেশগুলির মন জয়ের সঙ্গে সঙ্গে চিনকে বড়সড় চাপে ফেলে দিলেন বলে মনে করছেন পরিবেশবিদরা৷ এর ফলে কার্বন নিঃসরণ কমাতে ও সিওপি-২১ চুক্তির শর্তগুলি মানতে চিনের উপর প্রবল চাপ বাড়াবে বিশ্বের বাকি দেশগুলি৷

এদিন দলের ন্যাশনাল কাউন্সিলের মিটিংয়ে বিদায়ী ভাষণ দিচ্ছিলেন মোদি৷ জলবায়ু বদল নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণার পাশাপাশিই প্রধানমন্ত্রী নিজের ভাষণে নির্বাচনী সংস্কারের পক্ষে সওয়াল করেন৷ নির্বাচনী সংস্কারের বিষয় নিয়ে তারা যে সারা দেশে সম্মেলন করবেন সেকথাও জানান তিনি৷ মোদি বলেন গণতন্ত্রের ভিত শক্ত করার জন্য এই সংস্কার জরুরি৷ নির্বাচনী প্রক্রিয়ার মধ্য অনেক পুরানো ও অপ্রসঙ্গিক জিনিস বাদ দেওয়ার ও নতুন প্রয়োজনীয় অনেক কিছুই জোড়ার রয়েছে৷ দেশের বহু রাজনৈতিক দল তাঁর কাছে এবিষয়ে জানতে চেয়েছে বলেও মোদি মন্তব্য করেন৷ জোরালো আলোচনার মাধ্যমেই নির্বাচনী সংস্কারের উপায় বের হোক বলেই জানান প্রধানমন্ত্রী৷

বিজেপির জাতীয় পর্ষদের বৈঠকের মঞ্চ উরিতে জঙ্গি হামলার ঘটনা, পন্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায়ের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন ও গরিব কল্যাণকে কেন্দ্র করেই আবর্তিত হয়েছে৷  প্রধানমন্ত্রী ভাষণ থেকে শুরু করে পর্ষদের বৈঠকে গৃহীত রাজনৈতিক প্রস্তাব সবেতেই দীনদয়ালের আদর্শ ও গরিব কল্যাণ সংক্রান্ত মতাদর্শ বড় আকারে উপস্থিত ছিল৷ এমনকি যে রাজনৈতিক প্রস্তাবটি নেওয়া হয়েছে সেটিরও নাম দেওয়া হয়েছে ‘পন্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায় জন্মশতবার্ষিকী প্রস্তাব’৷ রাজনৈতিক প্রস্তাবটি পাঠ করেন কেন্দ্রীয় পরিবহণ মন্ত্রী নীতিন গড়কড়ি৷ মোদি দীনদয়ালের আবক্ষ মুর্তি উন্মোচন করে তাঁর জন্মশতবার্ষিকী অনুষ্ঠানের সূচনা করেন৷ সরকারি স্তরেও তাঁর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করা হবে বলে জানান৷

দীনদয়াল অন্ত্যোদয় যোজনার কথা বলে প্রধানমন্ত্রী দেশের আগামী বছরের পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের আগে দলের গরিবদরদী ভাবমূর্তি তুলে ধরার চেষ্টা করছেন বলেই রাজনৈতিকমহল মনে করছে৷ মুসলিমদের দিকে উন্নয়নের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার কথা মোদি নিজের ভাষণে উল্লেখ করে সংখ্যালঘুদের বার্তা দিতে চেয়েছেন বলেই মনে করা হচ্ছে৷ কেরলে দলীয় কাউন্সিলের এই বৈঠকে বিশেষ আমন্ত্রিত হিসেবে বাংলা থেকে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এছাড়াও ছিলেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়, পি সি সরকার৷ আগামি ৭ থেকে ৮ জানুয়ারি দিল্লিতে বিজেপির পরবর্তী ন্যাশনাল এক্সিকিউটিভ মিটিং অনুষ্ঠিত হবে৷

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে