BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মুখে মাস্ক-হাতে রং, ‘হোলিকা দহনে’ করোনাসুরকে বধ করলেন উৎসবপ্রেমীরা

Published by: Sayani Sen |    Posted: March 9, 2020 8:52 pm|    Updated: March 9, 2020 8:54 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হোলির আগে নেড়া পোড়া করেন বাঙালিরা। ঠিক তেমনই রঙের উৎসবের আগে অশুভ শক্তিকে দমন করার লক্ষ্যেই ‘হোলিকা দহন’ উৎসবেও মেতে ওঠেন প্রায় সকলেই। বর্তমানে বিশ্বের ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি করা করোনা ভাইরাসই সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করছে আমজনতার। তাই ‘হোলিকা দহনে’ করোনাসুরকেই পুড়িয়ে দিলেন মুম্বইয়ের বাসিন্দারা। ভাইরাল এই ভিডিওই যেন করোনা আতঙ্কিতদের মনে নতুন করে শক্তি জোগাচ্ছে।

ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, খড় দিয়ে একটি অসুর তৈরি করা হয়েছে। তার পেটে, হাতে লেখা Covid19। ভয়ানক চেহারার ওই অসুরটিকে পুড়িয়ে দেওয়া হয়। মূলত মুম্বই, ওরলির বাসিন্দারাই এভাবে ‘হোলিকা দহন’ পালন করেন। তাঁরা বলেন, “করোনা আতঙ্ক দিন দিন বেড়েই চলেছে। কোনওভাবেই এই মারণ চিনা ভাইরাসকে রোখা সম্ভব হচ্ছে না। ওষুধ কিংবা টিকা কিছুই প্রকৃত অর্থে আবিষ্কার না হওয়ায় ঠেকানো যাচ্ছে না প্রাণহানিও। তাই ক্রমশই চিন্তা বাড়ছে গোটা বিশ্ববাসী। এই পরিস্থিতিতে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় অশুভ শক্তি করোনা ভাইরাস। তাই আমরা চাই এই ধরনের অশুভ শক্তির ছায়া থেকে আমাদের পৃথিবী মুক্ত হোক। তাই ‘হোলিকা দহনে’র মাধ্যমেই আমরা ওই অশুভ শক্তি বিনাশের চেষ্টা করলাম।”

[আরও পড়ুন: ‘কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে মুক্তি দিন’, দাবি জানিয়ে কেন্দ্রকে প্রস্তাবনা বিরোধীদের]

তাঁদের অভিনব এই ভাবনা ভাইরাল হতে বেশি সময় নেয়নি। লাইক, কমেন্টের ঝড় উঠেছে নেটদুনিয়ায়। কেউ কেউ এই ধরনের ‘হোলিকা দহন’ প্রথমবার দেখে চমকে গিয়েছেন।

আবার কেউ বলছেন, “আশা করি এই প্রার্থনা কাজ করবে। পৃথিবী থেকে বিদায় নেবে করোনা ভাইরাস।” আবার কেউ কেউ বলছেন, “এভাবে হোলিকা দহনের মাধ্যমে কোনও রোগকে রোখা যায় না। তাই এই ভাবনা একেবারেই বোকা বোকা ব্যাপার।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement