৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নব্যেন্দু হাজরা: ‘ধুঁকছে ভারতীয় রেল’, চলতি বাজেট অধিবেশনেই একথা জানিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ৷ এবং সেই ক্রমশ পিছনের দিকে হাঁটতে থাকা ভারতীয় রেলকে চাঙ্গা করতেই এবার তৎপর হল মোদি সরকার৷ দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় এসে প্রথম পূর্ণাঙ্গ বাজেটেই দক্ষিণ-পূর্ব রেল ও পূর্ব রেলের বরাদ্দ বাড়াল কেন্দ্র৷ সূত্রের খবর, এই বাজেটে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের বরাদ্দ বাড়ান হয়েছে ১০৮ কোটি টাকা৷ একই সঙ্গে পূর্ব রেলের বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে ৪৫ কোটি টাকা৷ একই সঙ্গে বেড়েছে মেট্রো রেলের বরাদ্দ৷ তবে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পে কোনও বরাদ্দ বাড়ানো হয়নি৷

[ আরও পড়ুন: বিজেপির পাশেই ব্যবসায়ীরা, কর্পোরেট চাঁদার ৯৩ শতাংশ গেরুয়া শিবিরে]

জানা গিয়েছে, গত ফেব্রুয়ারি মাসে হওয়া অন্তর্বর্তী বাজেটে দক্ষিণ-পূর্ব রেল এবং পূর্ব রেলে যথাক্রমে ২৩৮০ কোটি ও ২৩২১ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছিল সরকার৷ চলতি বাজেটে সেই বরাদ্দ অনেকটাই বাড়ান হয়েছে৷ এবার এই দুই ক্ষেত্রে বরাদ্দ হয়েছে যথাক্রমে ২৪৮৮ কোটি ও ২৩৬৬ কোটি টাকা৷ একই সঙ্গে দেশের মেট্রো রেল প্রকল্পগুলির বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে৷ অন্তর্বর্তী বাজেটে যে বরাদ্দ ছিল ৭৭১ কোটি, পূর্ণাঙ্গ বাজেটে তা করা হয়েছে ৮৫৩ কোটি৷ কিন্তু শহরবাসীর জন্য দুঃখের বিষয় হল, পূর্ণাঙ্গ বাজেটে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ একই রেখেছে মোদি সরকার৷ অন্তর্বর্তী বাজেটে এই প্রকল্পে যে ৯০৫ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছিল, পূর্ণাঙ্গ বাজেটেও তা অপরিবর্তিত রেখেছে সরকার৷

[ আরও পড়ুন: শিশুদের যৌন নির্যাতনে মৃত্যুদণ্ড, আইনি সংশোধনের পথে কেন্দ্র ]

প্রসঙ্গত, প্রথম বাজেটেই চমক দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ৷ রেলে ‘পিপিপি’ মডেল বা ‘পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ’-এর প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি৷ জরাগ্রস্ত ভারতীয় রেলের খোলনলচে পালটাতে বেসরকারি বিনিয়োগের রাস্তায় হাঁটার কথা বলেন অর্থমন্ত্রী৷ বিরোধীদের প্রতিবাদের মুখে পড়তে হবে জেনেও অর্থমন্ত্রী সাফ জানান, বয়সের ভারে ন্যুব্জ ভারতীয় রেলের আধুনিকীকরণ ও নয়া পরিকাঠামো নির্মাণে আনুমানিক ব্যয় ১৫ লক্ষ কোটি টাকা৷ কিন্তু রেল আয় করছে মাত্র ১ কোটি ৬০ লক্ষ টাকা৷ ফলে এই বিপুল অর্থ জোগান দিতে প্রয়োজন বেসরকারি বিনিয়োগের৷ তাই এই মুহূর্তে পরিস্থিতির দাবি মেনে ‘পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ’ অত্যন্ত জরুরি৷ 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং