৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জলে থইথই চতুর্দিক৷ তাই পালকি চড়ে শ্বশুরবাড়ি যাওয়া অসম্ভব৷ তেমনই আবার নববধূর পক্ষে ভারী শাড়ি-গয়নায় সেজে হেঁটে হেঁটে জল পেরিয়ে নতুন বাড়ি যাওয়াও সম্ভব নয়৷ তাই বাড়ির তৈরি জলে ভাসমান জার এবং কাঠের তৈরি নৌকায় চড়েই স্বামীর বাড়ি রওনা দিলেন নববধূ৷ লাজুক কন্যের অভিনব যাত্রা নজর কেড়েছে সকলের৷

[ আরও পড়ুন: অসমে ভয়াবহ বন্যাতেও অক্ষত বিষ্ণুমূর্তি, ঐশ্বরিক ক্ষমতার কাছে হার প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের!]

বিহারের যোগবানির গরহা গ্রামের বাসিন্দা তরুণীর বিয়ে ঠিক হয়েছিল বেশ কয়েকদিন আগে৷ অনুষ্ঠানের দিন যত এগিয়ে আসছিল, ততই যেন বৃষ্টির দাপটও বাড়তে শুরু করে৷ সকলেই ভেবেছিলেন এ বৃষ্টি বর্ষার তাই বড় কোনও বিপদের সম্ভাবনা নেই৷ কিন্তু ভাবনার সঙ্গে বাস্তব মিলল কই? তার পরিবর্তে টানা বৃষ্টিতে বিহারে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে৷ জলের তলায় চলে গিয়েছে গ্রামের পর গ্রাম৷ তবে সে কারণে তো আর বিয়ে পিছিয়ে দেওয়া যায় না৷ তাই তো নির্ধারিত দিন অনুযায়ী বিয়ে হয়৷ অবিরাম বৃষ্টিতে একটু একটু জলস্তর যেমন বেড়েছে তেমনই পাল্লা দিয়েছে কনের পরিবারের দুশ্চিন্তা৷ কীভাবে মেয়েকে শ্বশুরবাড়ি পাঠাবেন, তা ভেবেই আকুল অভিভাবকেরা৷

বৃষ্টি না হলে পালকিতে চড়িয়ে রাজকন্যার মতো শ্বশুরবাড়িতে মেয়েকে পাঠানোর ভাবনা ছিল কনের পরিজনদের৷ কিন্তু বাধ সাধল বৃষ্টি৷ জল থইথই রাস্তায় তো আর পালকি চড়ে যাওয়া সম্ভব নয়৷ তাই বাধ্য হয়েই বিকল্প যানের ভাবনাচিন্তা করেন কনের পরিজনেরা৷ এই পরিস্থিতিতে একমাত্র বাঁচাতে পারে নৌকা৷ কনের পরিজনেরা বলেন, ‘‘জলের ভাসমান জার এবং কাঠের সাহায্যে একটি নৌকা তৈরি করি আমরা৷ তাতেই মেয়েকে শ্বশুরবাড়ি পাঠাব বলে ভাবি৷’’

যেমন ভাবনা তেমন কাজ৷ রাতভর পরিশ্রম করে অভিনব নৌকা তৈরি করেন কনের পরিজনরা৷ বৈবাহিক রীতি শেষ হওয়ার পর ওই নৌকা চড়েই শ্বশুরবাড়ির পথে পাড়ি দেন কনে৷ সঙ্গে ছিলেন তাঁর স্বামী৷ জলমগ্ন এলাকায় এই ভোগান্তির দিন কবে শেষ হবে, এই ভাবনায় মগ্ন গ্রামবাসীরা৷ তবে এই বিপদের দিনেও নবদম্পতির অভিনব যাত্রা দেখে মুখের হাসি চওড়া হয়েছে অনেকের৷ প্রশংসাও কুড়িয়েছেন অভিনব নৌকার সৃষ্টিকর্তারা৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং