BREAKING NEWS

১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  বুধবার ৫ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ব্যাংক থেকে টাকা তোলার ক্ষেত্রে দিতে হবে GST? সংসদে কী জানালেন অর্থমন্ত্রী

Published by: Biswadip Dey |    Posted: August 2, 2022 8:55 pm|    Updated: August 2, 2022 8:55 pm

No GST on withdrawal of cash from banks, says Finance Minister Nirmala Sitharaman। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ব্যাংক থেকে টাকা তোলার ক্ষেত্রে কোনও জিএসটি (GST) দিতে হয় না। মঙ্গলবার রাজ্যসভায় প্রশ্নোত্তর পর্বে একথা জানালেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ (Nirmala Sitharaman)। সেই সঙ্গে তিনি এও জানালেন, হাসপাতালের বেড অথবা আইসিইউয়ের ক্ষেত্রেও ধার্য করা হয় না কোনও জিএসটি। তবে কেবলমাত্র হাসপাতালের যে ঘরের ভাড়া দৈনিক ৫ হাজার টাকা, সেখানে জিএসটি বসছে। এভাবেই মঙ্গলবার জিএসটি প্রসঙ্গে এমন মন্তব্য করতে দেখা গেল অর্থমন্ত্রীকে।

মঙ্গলবার মূল্যবৃদ্ধি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে নির্মলা বলেন, ”ব্যাংক থেকে টাকা তোলার ক্ষেত্রে কোনও জিএসটি নেই। ৫ ও ৫, এটিএম থেকে মাসে মোট ১০টি লেনদেন সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।” পাশাপাশি নির্মলা বলেন, জিএসটি কাউন্সিলের সদস্য সমস্ত রাজ্যের সম্মতিতেই ৫ শতাংশ জিএসটি বসানো হয়েছিল প্যাকেটজাত, লেবেল লাগানো খাদ্যসামগ্রীতে। তাঁর দাবি, সেই সময় কেউই এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করেনি। তবে সেই সঙ্গে অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, দরিদ্রদের জন্য কোনও খাবারেই কর নেওয়া হয় না। ৫ শতাংশ জিএসটি কেবলমাত্র প্যাকেটজাত খাবারের ক্ষেত্রেই। যেগুলি প্যাকেট ছাড়াই বিক্রি হয়, সেগুলির ক্ষেত্রে কেন্দ্র কোনও জিএসটি ধার্য করেনি।

[আরও পড়ুন: ‘রাগ ছিল, জুতো মেরে শান্তি পেয়েছি’, ESI হাসপাতালে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের উপর হামলা মহিলার]

এরই সঙ্গে অর্থমন্ত্রী মনে করিয়ে দিয়েছেন, শ্মশান কিংবা গোরস্থানে কোনও জিএসটি নেওয়া হয় না। তবে শ্মশানের চুল্লি তৈরির কাজে নির্দিষ্ট হারে জিএসটি বসবে বসে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

রাজ্যসভায় মুদ্রাস্ফীতি নিয়ে বিতর্ক চলাকালীন এই মন্তব্যগুলি করতে দেখা গিয়েছে নির্মলাকে। তিনি বলেন, ”এই মুহূর্তে আমরা যে ৭ শতাংশ মুদ্রাস্ফীতিতে রয়েছি তা আরবিআই ও সরকারের কিছু প্রচেষ্টার ফলেই সম্ভব হয়েছে।” সেই সঙ্গে তাঁকে বলতে শোনা যায়, ”আমরা তো বলছি না মুদ্রাস্ফীতি নেই। কেউই এটা অস্বীকার করতে পারবে না মূল্যবৃদ্ধি হয়েছে।” অর্থমন্ত্রীর দাবি, মুদ্রাস্ফীতিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে ইতিমধ্য়েই সরকার কিছু পরিকল্পনা করে সেইমতো পদক্ষেপও করা শুরু করেছে।

[আরও পড়ুন: ঘটেনি কোনও বিস্ফোরণ, গোপন ক্ষেপণাস্ত্রেই খতম জওয়াহিরি! কীভাবে হল লক্ষ্যভেদ?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে