১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

স্ট্রেচার নেই হাসপাতালে, এক্স-রে রুমে স্বামীকে টেনে নিয়ে গেলেন স্ত্রী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 2, 2017 2:45 pm|    Updated: June 2, 2017 2:45 pm

No stretcher, woman forced to drag husband for X-ray in Karnataka hospital

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যতই আধুনিকতার ছোঁয়া লাগুক, কিছু কিছু ক্ষেত্রে  বিশেষ করে চিকিৎসার দিক থেকে দেশ যে এখনও পিছিয়ে রয়েছে ফের একটি ঘটনা সেটা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল। যেখানে এখনও অ্যাম্বুলেন্সের অভাবে স্ত্রীর মৃতদেহ কাঁধে করে কয়েক কিলোমিটার হেঁটে যেতে হয় স্বামীকে। কখনও বা কেবলমাত্র টাকার অভাবে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হয় রোগীর। সেরকমই আরও একটি ঘটনা সামনে এসেছে।

[যুবককে পিটিয়ে গায়ে অ্যাসিড ঢালল প্রেমিকার মা-বাবা]

গোটা হাসপাতালে স্ট্রেচার নেই। অথচ স্বামীর এক্স-রে করাতে হবে। তাই স্বামীর শরীরকে টেনে হিঁচড়েই এক্স-রে রুমে নিয়ে গেলেন স্ত্রী। ইতিমধ্যে সেই ঘটনাটির ভিডিও ছড়িয়েও পড়েছে। আর তাতেই দেখা দিয়েছে চাঞ্চল্য। ফের একবার দেশের স্বাস্থ্য পরিষেবা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

[কাশ্মীরে এবার সেনার নজরে ‘বেডরুম জেহাদি’রা]

জানা গিয়েছে, সম্প্রতি কর্ণাটকের শিবামোগ্গাতে অবস্থিত মেগান সরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন আমির সাব নামের এক ব্যক্তি। চিকিৎসকরা তাঁর এক্স-রে করার পরামর্শ দেন। কিন্তু গোটা হাসপাতালের পরিষেবা এতই খারাপ ছিল যে, স্বামীর জন্য একটিও স্ট্রেচার পাননি স্ত্রী ফামিদা। শেষে চাদরে শুয়ে থাকা স্বামীকে টেনে হিঁচড়ে এক্স-রে রুমে নিয়ে যান। ঘটনাটির ভিডিওটি ইতিমধ্যেই সামনে এসেছে। আর সেটি দেখে হাসপাতালগুলির ভগ্ন পরিষেবার জন্য অনেকেই সমালোচনা করেছেন।

[ভ্যাকিউম ক্লিনারের সঙ্গে স্বামী যা করলেন, লজ্জায় মাথা কাটা গেল স্ত্রীর]

এর আগে গত ২১ মে হাসপাতাল থেকে অ্যাম্বুলেন্স না পাওয়ায় মৃত স্ত্রীকে স্ট্রেচারে নিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন এক ব্যক্তি। এছাড়া গত বছর নভেম্বরে অনন্তপুর জেলার গুনতাকাল শহরের এক সরকারি হাসপাতালেও এরকম একটি ঘটনা ঘটেছিল। যেখানে হাসপাতালের কর্মী স্ট্রেচার  পাওয়া যাবে না জানালে স্বামীকে ব়্যাম্পের মধ্যে দিয়ে বয়ে নিয়ে যেতে বাধ্য হন স্ত্রী।

[বিলাসবহুল জীবনযাত্রাই কাল, তিন মাসের জন্য দল থেকে সাসপেন্ড ঋতব্রত]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে