BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দেশের প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে অগ্রগতিতে প্রথম বৈঠক ডিফেন্স প্ল্যানিং কমিটির

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 6, 2018 2:44 pm|    Updated: May 6, 2018 2:44 pm

NSA Ajit Doval-led defence panel decides to fast-track military purchases

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ও অভ্যন্তরীন নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও দৃঢ় করতে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিল জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালের নেতৃত্বে গঠিত ডিফেন্স প্ল্যানিং কমিটি। বৃহস্পতিবার তাদের প্রথম বৈঠকে বসেছিল এই কমিটির সদস্যরা। উপস্থিত ছিলেন ভারতের তিন সেনার প্রধান-সহ প্রতিরক্ষা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সচিব ও উচ্চপদস্থ কর্তারা।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রক সূত্রে খবর, ভারতের প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে সামর্থ ও আভ্যন্তরীন নিরাপত্তা ক্ষেত্রে সামর্থকে যাচাই করে তা জোরদার করা বিষয়ে আলোচনা হয়েছে উক্ত বৈঠকে। দেশের অস্ত্র ভাণ্ডারকে আরও বেশি করে শক্তিশালী করতে বলা হয়েছে দীর্ঘমেয়াদী সিদ্ধান্ত গ্রহণের কথা। জানা গিয়েছে, বৈঠকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। এছাড়া ছিলেন, সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত, নৌসেনা প্রধান অনীল লাম্বা ও বায়ু সেনা প্রধান বিএস ধানোয়া। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, প্রতিরক্ষা সচিব সঞ্জয় মিত্র ও বিদেশমন্ত্রকের সচিব বিজয় কেশব গোখেল ছাড়াও অন্যান্য উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দপ্তরের অধীনেই কাজ করবে এই ডিফেন্স প্ল্যানিং কমিটি।

২০১৪-তে দিল্লির মসনদে বসেই দেশের প্রতিরক্ষা ও অভ্যন্তরীন নিরাপত্তাকে মজবুত করার জন্য জোর দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিশেয করে ভারতের দুই প্রতিবেশী দেশ চিন ও পাকিস্তানকে মাথায় রেখে আরও বেশি করে ঘরে-বাইরে মজবুত করাই ছিল মোদির লক্ষ্য। এই কমিটি তৈরি করাও তাঁর সেই পরিকল্পনারই একটি অংশ। জানা গিয়েছে, এই কমিটির কাজ হবে দেশের নিরাপত্তা ও সেনার শক্তি মজবুত করার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ, দ্রুত ও সুদূরপ্রসারী সিদ্ধান্তগ্রহণ। অস্ত্র ভাণ্ডার আরও শক্তিশালী করার জন্য উপযোগী সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কি করা যেতে পারে সেই বিষয়ে দীর্ঘমেয়াদী সিদ্ধান্ত তালিকাভুক্ত করা। প্রথম বৈঠকে এই কমিটি যে রিপোর্ট তৈরি করেছে সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে যে, চলতি বছরে পেশ করা বাজেটে প্রতিরক্ষা খাতে বরাদ্দ করা হয়েছে ২.৯৫ লক্ষ কোটি টাকা। যাতে নাখুশ সেনা। তাদের মতে, প্রতিরক্ষা খাতে আরও বেশিই বরাদ্দ করা উচিত ছিল কেন্দ্রের।

একই কথা প্রতিরক্ষা বিষয়ক সংসদীয় কমিটিকে জানিয়েছিলেন সহ-সেনা প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল শরৎ চন্দ। তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন, এতকম বরাদ্দের ফলে বন্ধ হয়ে যেতে পারে প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’র অন্তর্গত ১২৫টি প্রকল্প। ডিফেন্স অ্যাকুইজিশন কাউন্সিল না ডিএসি-র পূর্ববর্তী বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছিল ১৮১৯ কোটি টাকার বিনিময়ে দেশের তিন বাহিনীর জন্য ৭.৪০ লক্ষ অ্যাসল্ট রাইফেল, লাইট মেশিন গান ও ৫৭১৯টি স্নাইপার রাইফেল ক্রয় করবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। এই সমস্ত বিষয় উল্লেখ করেই লেফটেন্যান্ট জেনারেল শরৎ চন্দ্র সংসদীয় কমিটিকে জানিয়েছিলেন, যা আশা করা হয়েছিল তার চেয়ে অনেক কম পেয়েছে সেনা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে