১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বাবার সঙ্গে ঝগড়ার জের, শয্যাশায়ী বৃদ্ধা মাকে জীবন্ত পোড়াল ছেলে

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: July 7, 2019 8:38 pm|    Updated: July 7, 2019 8:38 pm

Odisha: Man burns alive bedridden mother after a fight with his father

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পারিবারিক কিছু বিষয় নিয়ে বাবার সঙ্গে ঝগড়া হয়েছিল। সেই রাগে বিছানায় শয্যাশায়ী মাকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারল ছেলে। মৃতের বয়স ৭৫ বছর বলে জানা গিয়েছে। পাশবিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ওড়িশার বলাঙ্গির জেলার রাধাবাহালা গ্রামে। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে জেরা করার পাশাপাশি করেছে ঘটনাটির তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন- সন্তানদের বিদেশে পাঠিয়ে রাজ্যের পড়ুয়াদের ভবিষ্যৎ নষ্ট, নজরে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ভূমিকা]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অসুস্থ স্ত্রী ও ছেলে সন্তোষকে নিয়ে বলাঙ্গির জেলার রাধাবাহালা গ্রামে বসবাস করেন রুশি খারসেল। প্রথমে কোনও সমস্যা না থাকলেও পারিবারিক কিছু বিষয় নিয়ে কয়েকদিন ধরে গন্ডগোল চলছিল বাবা ও ছেলের মধ্যে। শনিবার সেই গন্ডগোল চরম আকার ধারণ করে। বচসার মাঝে বাবাকে একটি কাঠের টুকরো দিয়ে মারধর করে সন্তোষ। তারপর বিছানায় শয্যাশায়ী থাকা মায়ের শরীরে আগুন ধরিয়ে বাড়ি  থেকে পালিয়ে যায়। পরে রুশির চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে তাঁর স্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু, সেখানকার চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

[আরও পড়ুন- আরও সংকটে কংগ্রেস! এবার ইস্তফা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার]

এপ্রসঙ্গ বেলপদা থানার আইসি সচিদানন্দ বারিয়া বলেন, ” শনিবার সকাল সাতটা ১১ মিনিটে আমাদের থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়। তাতে উল্লেখ করা হয়েছিল যে সন্তোষ নামে এক ব্যক্তি নিজের মাকে পুড়িয়ে মেরেছে। এরপরই ঘটনাস্থলে যাই আমরা। সেখানে গিয়ে জানতে পারি, সাতবছর ধরে বিছানায় শয্যাশায়ী ছিলেন রুশির স্ত্রী। শনিবার বাবার সঙ্গে গন্ডগোলের জেরে তাঁকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করেছে ছেলে সন্তোষ। শুধু তাই নয়, এই ঘটনার আগে একটি কাঠের টুকরো দিয়ে রুশিকে বেধড়ক মারধর করে সে। পরে ঘটনাস্থলে থেকে পালিয়ে যায়। ছেলে পালানোর পরেই বাড়ির বাইরে এসে প্রতিবেশীদের পুরো বিষয়টি খুলে বলেন রুশি। তারপর তাঁদের সহযোগিতায় স্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্ত, কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। বর্তমানে মৃতের স্বামীর অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর ছেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তদন্তও চলছে।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে