BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনায় ত্রস্ত অসম, বাড়িতেই রমজান পালনের বার্তা বদরুদ্দিনের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: April 17, 2020 9:29 am|    Updated: April 17, 2020 11:49 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চাপে পড়ে সুর বদল AIUDF সুপ্রিমো বদরুদ্দিন আজমলের। করোনা মহামারির আবহে এবার সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কাছে বাড়িতেই রমজান পালনের বার্তা দিলেন তিনি। যদিও কোভিড-১৯ নিয়ে এর আগে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন তাঁরই দলের বিধায়ক আমিন উল ইসলাম। সে সময় মৌন থেকে বিতর্ক উসকে দিয়েছিলেন আজমল।

[আরও পড়ুন: সেফটি টেস্টে ডাহা ফেল চিনা PPE, প্রশ্নের মুখে স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা]

সংবাদমাধ্যমে অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট প্রধান আজমল বলেন, “আমি মুসলিম ভাই ও বোনেদের কাছে আবেদন জানাচ্ছি, আপনারা বাড়িতে থেকেই রমজান পালন করুন। লকডাউনে সরকার যে নিয়ম চালু করেছে তা পালন করুন।” এদিকে, লকডাউন মানার কথা বললেও, করোনা ভাইরাস ছড়ানোর দায়ে অভিযুক্ত  তবলিঘি জামাতকে আড়াল করার চেষ্টা করেন আজমল। তাঁর যুক্তি, আমেরিকা ও স্পেনের মতো কোভিড-১৯ আক্রান্ত দেশগুলিতে কি জামাত করোনা ছড়িয়েছে। বিতর্কিত জামাত প্রধান মৌলানা সাদ কান্দালভির সমর্থনে AIUDF সুপ্রিমোর বক্তব্য, তবলিঘি জামাতের সদস্য অনেক ডাক্তার ও উচ্চশিক্ষিত ব্যক্তি। তাঁরা মৌলানা সাদকে পরিস্থিতি কতটা গম্ভীর তা বুঝিয়ে বলেননি। সব মিলিয়ে, ভাইরাস ছড়ানোয় জামাতের ভূমিকার কথা স্বীকার করলেও লাগাতার সংগঠনটির পক্ষে যুক্তি প্রদর্শন করেন তিনি। 

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই রাজ্যের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারগুলি নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন AIUDF নেতা তথা বিধায়ক আমিন উল ইসলাম। এর আগে নিজামুদ্দিন মারকাজে তবলিঘি জামাতের সমাবেশ নিয়েও বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন আমিন।  তাঁর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা রুজু করা হয়। এদিকে, এপর্যন্ত অসমে ৩৪টি করোনা পজিটিভ মামলার কথা সামনে এসেছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে একজনের। উদ্বেগজনকভাবে আক্রান্তদের প্রায় সকলেরই তবলিঘি জামাত যোগ রয়েছে। দিল্লির নিজমুদ্দিনে মারকাজে যোগ দিয়ে অসমে এসে লুকিয় ছিল কয়েকশোও জামাতি। সরকার বারবার আহ্বান জানালেও দীর্ঘদিন স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য এগিয়ে আসেনি তারা।             

[আরও পড়ুন: শুনশান করোনা ‘হটস্পট’ বেঙ্গলি মার্কেট, লকডাউনের দ্বিতীয় পর্বে আরও সতর্ক দিল্লি]              

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement