১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৬ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সেনাকে নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য গুলাম নবির, কংগ্রেস নেতার সমর্থনে পাক জঙ্গিগোষ্ঠী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 22, 2018 9:40 pm|    Updated: June 22, 2018 9:40 pm

Pak terror outfit LeT backs Congress leader Ghulam Nabi Azad

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগামী বছরের লোকসভা নির্বাচন নিয়ে কংগ্রেস-বিজেপি তরজা যখন তুঙ্গে, তখন বিজেপির হাতে মারাত্মক অস্ত্র তুলে দিলেন কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ। সম্প্রতি তিনি এমনই একটি মন্তব্য করেছেন, যার ফলে অস্বস্তিতে পড়েছে কংগ্রেস শিবির। কংগ্রেসের এই বর্ষীয়ান নেতা বলছেন, কাশ্মীরে সাধারণ নাগরিকের হত্যার দায় কার্যত ভারতীয় সেনার উপরেই চাপিয়ে দিলেন তিনি। বললেন, জঙ্গিরা কাশ্মীরে যত না মানুষ মারছে, তার চেয়ে বেশি নাগরিকের হত্যা করছে সন্ত্রাস বিরোধী অভিযান।

খতম শীর্ষ আইএস কমান্ডার, উপত্যকায় জঙ্গি দমনে সেনার বিরাট সাফল্য ]

দুর্ভাগ্যের বিষয় গুলাম নবির এই বক্তব্যকে সরাসরি সমর্থন করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী লস্কর-ই-তইবা। একটি বিবৃতি জারি করে তারা বলেছে, কংগ্রেস নেতা যা বলেছেন তা অক্ষরে অক্ষরে সত্যি। লস্করের মুখপাত্র আবদুল্লা গজনাভি বলেছে, তাদের দলের প্রধান মহমুদ শাহ আজাদের এই বক্তব্য সমর্থন করেছে। এই জঙ্গিগোষ্ঠীর জারি করা বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আজাদ যা বলেছেন, তাদের বক্তব্যও একই।

এরপরই তারা রমজানে সংঘর্ষবিরতি জারি রাখার প্রসঙ্গে তোলে। জানায়, জম্মু ও কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মহেবুবা মুফতি আরএসএসের পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করার চূড়ান্ত চেষ্টা করেছিল। জম্মু ও কাশ্মীর উপত্যকায় প্রায় ৮ লাখ ভারতীয় সেনা নৃংশতার পরিচয় দেয়। সাধারণ মানুষ প্রায় দাসত্বের পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছিল।

আর হবে না ব়্যাফটিং! উত্তরাখণ্ডে ওয়াটার স্পোর্টসের উপর নিষেধাজ্ঞা ]

আজাদ বলেছেন, সন্ত্রাসদমনের নামে মাত্র চারজন জঙ্গিকে মারা হয়েছে। কিন্তু সেই সঙ্গে ২০ সাধারণ নাগরিকেরও মৃত্যু হয়েছে। জঙ্গিদের থেকে সাধারণ মানুষই তাদের লক্ষ্য ছিল বলেও মন্তব্য করেন তিনি। পুলওয়ামায় তারা ১৩ জন নাগরিককে মেরেছে। জঙ্গিনিধন হয়েছে মাত্র একটি।

আজাদের এই মন্তব্যের পর স্বভাবতই অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছে বিজেপি। দলের মুখপাত্র রবিশঙ্কর প্রসাদ জানিয়েছেন, জম্মু ও কাশ্মীরে ২০১২ সালে ৭২ সন্ত্রাসবাদীকে মেরে ফেলা হয়। ২০১৩ সালে সেই সংখ্যা ছিল ৬৭। ২০১৪ সালের জুন মাসে ক্ষমতায় আসে বিজেপি। সেই বছর ১১০ জন জঙ্গিকে খতম করা হয়। ২০১৫, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে এই সংখ্যা দাঁড়ায় যথাক্রমে ১০৮, ১৫০ ও ২১৭। এবছর মে মাস পর্যন্ত ৭৫ জন জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়েছে। প্রসাদ আরও বলেছেন, কংগ্রেস এখন তাদের সঙ্গে ওঠা বসা করছে, যারা দেশকে ভাঙতে চাইছে।

বিনা পয়সায় পুলিশকে সবজি দিতে নারাজ, শ্রীঘরে কিশোর ]

সম্প্রতি জঙ্গিদের হাতে নিহত জওয়ান ঔরঙ্গজেবের বাড়ি গিয়েছিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। প্রসাদ বলেছেন, “আমরা ঔরঙ্গজেবের সাহসকে স্যালুট জানাই। কিন্তু গুলাম নবি আজাদ বলেছেন, সেনা প্রধান ও প্রতিরক্ষামন্ত্রীর ঔরঙ্গজেবের বাড়ি যাওয়া নাটক মাত্র।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে