BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পুলওয়ামার বদলা! জয়পুরের জেলে পিটিয়ে মারা হল পাকিস্তানি বন্দিকে

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 20, 2019 7:12 pm|    Updated: February 20, 2019 7:12 pm

Pakistani beaten to death in Jail

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুলওয়ামার ঘটনার বদলা! জয়পুর সেন্ট্রাল জেলে বন্দি থাকা পাকিস্তানের এক নাগরিককে পিটিয়ে মারল অন্য বন্দিরা। এই ঘটনায় তিনজন জড়িত আছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। মৃতের নাম শাকিরউল্লা বলে জানা গিয়েছে। তাকে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে ধরেছিল পুলিশ। সূত্রের খবর, শাকিরউল্লাকে পিটিয়ে মারার ঘটনা জানাজানি হওয়ার পরেই জয়পুর সেন্ট্রাল জেলে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে যান রাজস্থান পুলিশের শীর্ষ আধিকারিকরা। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। ঘটনাটির সত্যতার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন রাজস্থান পুলিশের আইজিও।

জয়পুর পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ৫০ বছরের শাকিরউল্লা ২০১১ সাল থেকে জেলবন্দি ছিল। বুধবার টিভির আওয়াজ বাড়ানো নিয়ে অন্য তিন বন্দির সঙ্গে শাকিরউল্লার ঝামেলা শুরু হয়। আর তারপরই ওই তিনজন বড় একটি পাথর দিয়ে শাকিরউল্লার মাথায় সজোরে আঘাত করে। জেলের মধ্যে অতবড় পাথর কী করে এল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। খুনের ঘটনার তদন্ত চালানোর জন্য একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

[পাকিস্তানের ‘পরম বন্ধু’কে আলিঙ্গন কেন? প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন কংগ্রেসের]

গত বৃহস্পতিবার পুলওয়ামার অবন্তিপোরায় সিআরপিএফের কনভয়ে আত্মঘাতী হামলা চালায় পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিরা। এই ঘটনায় শহিদ হন ৪৯ জন জওয়ান। এরপরই ভারতীয় নিরাপত্তা সংস্থাগুলির তরফে এই হামলার জন্য পাকিস্তানের সেনা ও গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইকে দায়ী করে বিবৃতি দেওয়া হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, পাকিস্তানের টাকাতেই এই হামলা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, পুলওয়ামার ঘটনার জন্য পাকিস্তানকে চরম শিক্ষা দেওয়া হবে। নিরাপত্তা সংস্থাগুলিকে তাদের সময়মতো পুলওয়ামার ঘটনার বদলা নেওয়ার জন্য সম্পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে।

[দেশের সেবা করতে সেনাকর্মী হতে চান কাশ্মীরের ২৫০০ যুবক]

ভারতের পাশে দাঁড়িয়ে ঘটনাটির নিন্দা করে আমেরিকা ও রাশিয়া-সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশও। ইজরায়েলের তরফে এই হামলার বদলা নিতে ভারতকে সবরকম সাহায্যের প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়। ভারতের পক্ষ থেকে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসংঘের কাছেও অভিযোগ জানানো হয়। শুরু হয় গোটা বিশ্ব থেকে পাকিস্তানকে বিচ্ছিন্ন করার প্রয়াসও। যদিও তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে পাকিস্তান। তাদের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, এই হামলার পিছনে তাদের কোনও হাত নেই। ভারত যে অভিযোগ করছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। তবে তারা যদি এই ঘটনার জেরে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হামলা চালায় তাহলে পাকিস্তানের কাছে প্রত্যাঘাত করা ছাড়া কোনও পথ থাকবে না।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে