BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

ভারতীয় সেনাবাহিনীর উপর মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে নজরদারি পাকিস্তানের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 14, 2016 8:33 pm|    Updated: December 14, 2016 8:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গেমস, মিউজিক অ্যাপে পাকিস্তানের নজরবন্দি ভারতীয় সেনা! ভারতের সশস্ত্র বাহিনীকে আরও মজবুত, বিধ্বংসী করে তুলতে চান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ স্লোগান তুলে সেনাবাহিনীকে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা রয়েছে কেন্দ্রের, যার জন্য বরাদ্দও হয়েছে কোটি কোটি টাকা৷ কিন্তু মোদির স্বপ্নে জল ঢালতে এবার উঠেপড়ে লেগেছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই৷ কেন্দ্রীয় নিরাপত্তারক্ষী বাহিনীর প্রতিটি পদক্ষেপের উপর নজরদারি চালাচ্ছে আইএসআই৷ মোবাইল গেম ও মিউজিক অ্যাপের মাধ্যমে জওয়ানদের ফোনে ম্যালওয়ার ঢোকাচ্ছে আইএসআই-এর গুপ্তচররা৷ Top Gun (গেমিং অ্যাপ), mpjunkie (মিউজিক অ্যাপ), vdjunky (ভিডিও অ্যাপ), talking frog (বিনোদনমূলক অ্যাপ)-এর মতো জনপ্রিয় অ্যাপকে হাতিয়ার করে ভারতীয় সেনাবাহিনীর একেবারে অন্দরে পৌঁছে যাচ্ছে পাক গুপ্তচররা৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী হরিভাই পারথিভাই চৌধুরি লোকসভায় এক প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে এ কথা জানিয়েছেন৷

(৬০,০০০ কোটি টাকার রণসজ্জায় আরও শক্তিশালী ভারতীয় সেনা)

কী করে এই ম্যালওয়ার? কোনও স্মার্টফোনে একবার ম্যালওয়ার হানা দিলে সেই স্মার্টফোনের প্রতিরোধ ক্ষমতা কার্যত শেষ হয়ে যায়৷ স্মার্টফোনে সংরক্ষিত যে কোনও তথ্য নিমেষে পৌঁছে যায় হ্যাকারের হাতের মুঠোয়৷ এমনকী, এমন কিছু ম্যালওয়ার রয়েছে যেগুলি একবার স্মার্টফোনে ঢুকলে তার ক্যামেরাকেও নিয়ন্ত্রণ করতে পারে৷ অর্থাৎ, যিনি স্মার্টফোন ব্যবহার করছেন, তাঁর অজান্তেই স্মার্টফোনের ক্যামেরাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে একজন হ্যাকার৷ ঠিক এই পদ্ধতি অনুসরণ করেই ভারতীয় সেনাবাহিনীর অন্দরে ঢুকে পড়ছে পাক গুপ্তচররা৷ সেনাঘাঁটির ভিতরের খুঁটিনাটি জেনে নিচ্ছে আইএসআই৷ সেই তথ্য পৌঁছে যাচ্ছে পাক রেঞ্জার্স ও জঙ্গিদের কাছে৷ সেই মোতাবেক হামলা চালানো হচ্ছে সেনা ছাউনি, বায়ুসেনা ঘাঁটিতে৷ শহিদ হচ্ছেন দেশের জওয়ানরা৷

শুধু ম্যালওয়ার নয়, অবসরপ্রাপ্ত ভারতীয় সেনা আধিকারিকদের মোটা বেতনের চাকরি, বিপুল অর্থ, সুন্দরী মহিলার সঙ্গলাভের লোভ দেখিয়ে ভারতেরই বিরুদ্ধে লেলিয়ে দেওয়া হচ্ছে৷ দেশের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকগুলির শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে তাঁদের ঘনিষ্ঠতাকে কাজে লাগিয়ে ফায়দা লুঠতে চাইছে পাকিস্তান৷ পাক গুপ্তচরদের লোভের ফাঁদে পা দিয়ে ২০১৩ থেকে ২০১৬-র মধ্যে অন্তত সাতজন প্রাক্তন সেনা আধিকারিক গ্রেফতার হয়েছেন৷ যদিও নিরাপত্তা সংক্রান্ত কারণে তাঁদের পরিচয় প্রকাশ্যে আনেনি কেন্দ্র৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী চৌধুরি আরও জানিয়েছেন, ভারতীয় জওয়ানদের কোনওরকম সন্দেহজনক অ্যাপ স্মার্টফোনে ইনস্টল না করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে৷ পাশাপাশি সার্কুলার জারি করে কম্পিউটার সিকিউরিটি পলিসি ও গাইডলাইন বেঁধে দিয়েছে কেন্দ্র৷ সিসিটিভি ও বায়োমেট্রিক সিস্টেমের উপরেও বাড়তি নজর দেওয়া হচ্ছে৷ কোনওমতেই পাকিস্তানের সাইবার হামলার উদ্দেশ্য সফল হতে দেওয়া যাবে না, সাফ কথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের৷

(আমেরিকার ধাঁচে সেনাকে ঢেলে সাজানোই স্বপ্ন মোদির!)

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement