BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

প্যাংগংয়ের ফিঙ্গার এলাকা থেকে সরছে লালফৌজ, উপগ্রহ চিত্রে মিলল প্রমাণ

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 11, 2020 4:09 pm|    Updated: July 11, 2020 4:09 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লাদাখে লালফৌজের আগ্রাসনে যুদ্ধের দোরগোড়ায় পৌঁছে গিয়েছে ভারত ও চিন। তবে নয়াদিল্লির কড়া জবাব ও আন্তর্জাতিক মঞ্চের চাপে পিছু হটতে বাধ্য হয়েছে বেজিং। এবার প্যাংগংয়ের ফিঙ্গার এলাকা থেকে আংশিকভাবে চিনা সেনা প্রত্যাহারের প্রমাণ মিলল উপগ্রহের তোলা চিত্রে।

[আরও পড়ুন: তুরুপের তাস তাইওয়ান, লাদাখ নিয়ে পালটা কৌশল নয়াদিল্লির]

জুলাইয়ের ১০ তারিখ তোলা উপগ্রহের ছবিতে দেখা যাচ্ছে, লাদাখের প্যাংগং লেকের পারে ফিঙ্গার-৪ থেকে আংশিকভাবে সেনা প্রত্যাহার করেছে লালফৌজ। তবে এখনও চিনা সেনার বেশ কয়েকটি তাঁবু সেখানে রয়েছে। ফলে এটা সাফ হয়ে যাচ্ছে যে, দু’দেশের মধ্যে চলা কূটনৈতিক আলোচনার জেরে সেনা প্রত্যাহার শুরু হলেও ভারতের জমি থেকে (এপ্রিলের আগের অবস্থানে) সম্পূর্ণভাবে সরে যায়নি চিনা বাহিনী। পাশাপাশি, ফিঙ্গার-৪ থেকে ১০ কিলোমিটার পূর্বে প্যাংগং লেকে এখনও চিনা জলযান ঘোরাফেরা করছে। তবে গালওয়ান উপত্যকা থেকে ফৌজ সরিয়েছে চিন।   

উল্লেখ্য, গত মাসে তোলা উপগ্রহ চিত্রে দেখা যায়, প্যাংগংয়ের ফিঙ্গার ৪ এবং ফিঙ্গার ৫ এর মাঝে মান্দারিন লিপি ও চিনের মানচিত্র আঁকা রয়েছে। ওই চিত্রের দৈর্ঘ্য প্রায় ৮১ মিটার ও প্রস্থ ২৫ মিটার। ফলে তা স্যাটেলাইট থেকে স্পষ্ট দেখা গিয়েছে। শুধু তাই নয়, ওই দুই ফিঙ্গার পয়েন্টের মাঝে প্রচুর অস্থায়ী ছাউনি তৈরি করে ফেলেছে চিনা বাহিনী। মজুত করেছে অস্ত্রশস্ত্রও। উল্লেখ্য, প্যাংগং লেক বরাবর ফিঙ্গার ১ থেকে ফিঙ্গার ৮ পর্যন্ত বরাবর টহল দিয়ে এসেছে ভারতীয় ফৌজ। তবে চিনের দাবি, ফিঙ্গার ৮ থেকে ফিঙ্গার ৪ পর্যন্ত তাদের এলাকা। ফলে সংঘাত বাড়ছে দুই বাহিনীর মধ্যে। গত মে মাসে ওই এলাকায় আচমকাই ভারতীয় জওয়ানদের উপর লাঠি ও পাথর নিয়ে হামলা চালিয়েছিল চিনা বাহিনী। সেনা সূত্রে খবর, ওই ঘটনার পর থেকেই প্রচুর সেনা মোতায়েন করেছে লালফৌজ। শুধু তাই নয়, ফিঙ্গার ৪ থেকে আর ভারতীয় জওয়ানদের টহল দিতে দিচ্ছে না চিনারা। বর্তমানে ওই ফিঙ্গার ৪-ই কার্যত সীমান্ত হয়ে দাঁড়িয়েছে। আরও তাৎপর্যপূর্ণ যে, ফিঙ্গার ৪ পর্যন্ত এসে নির্মাণ কাজও শুরু করেছে চিনের পিপল‌স লিবারেশন আর্মি (পিএলএ)। তবে ফিঙ্গার ১ এবং ফিঙ্গার ২ পর্যন্ত চিনা বাহিনীর অগ্রসর হওয়ার কোনও প্রমাণ মেলেনি।

[আরও পড়ুন: অধরা মহাকাশের স্বপ্ন, ৬টি স্যাটেলাইট নিয়ে মুখ থুবড়ে পড়ল চিনা রকেট]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement