১৩ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২৭ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘স্বাধীনতার সময় কংগ্রেস ধর্মের ভিত্তিতে দেশভাগ করেছিল। তাই আজ নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিলের দরকার পড়েছে।’ সোমবার সংসদে দাঁড়িয়ে এই মন্তব্যই করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এই বিল পাশ হলে দেশের মানুষের মধ্যে বিভাজন তৈরি হবে বলে অভিযোগ করে বিরোধীরা। এর প্রেক্ষিতে ধর্মের ভিত্তিতে দেশভাগের জন্য কংগ্রেসের দিকে অভিযোগ আঙুল তোলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: সংসদে পেশ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল, অমিত শাহকে হিটলারের সঙ্গে তুলনা ওয়েইসির]

আজ লোকসভায় এই বিল পেশ করার সময় বিরোধী দলনেতা অধীর চৌধুরি থেকে তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় সবাই বিরোধিতা করেন। শুধুমাত্র মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ দেশ থেকে তাড়ানোর চক্রান্ত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন। এর জবাব দিতে গিয়ে অমিত শাহ বলেন, ‘১৯৪৭ সালে ধর্মের ভিত্তিতে দেশভাগ করেছিল কংগ্রেস। সেই কারণেই আজ নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল নিয়ে আসতে হয়েছে। সেসময় যদি ধর্মের ভিত্তিতে দেশভাগ না হত তাহলে আজ এই বিল আনার কোনও দরকার হত না। স্বাধীনতার সময় কংগ্রেসই ধর্মের ভিত্তিতে দেশ না ভেঙেছে। আমরা নই। তাছাড়া এই বিল ০.০০১ শতাংশ মুসলিম বিরোধী নয়। যদি অন্য দেশের কোনও মুসলিম ভারতে থাকার জন্য আবেদন জানায় তাহলে আমরা বিবেচনা করে দেখব।’

সোমবার বেলা ১২.১০ নাগাদ বিলটি লোকসভায় পেশ করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তারপরই প্রবল প্রতিবাদ শুরু করে বিরোধীরা। পরিস্থিতি এমন দাঁড়ায় যে অমিত শাহকে জার্মানির নাৎসি একনায়ক হিটলার ও ইজরায়েলের প্রতিষ্ঠাতা তথা প্রথম প্রধানমন্ত্রী ডেভিড বেন গুরিয়েনের সঙ্গে তুলনা করেন হায়দরাবাদের সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়েইসি। তীব্র আক্রমণ করেন লোকসভার বিরোধী দলনেতা ও কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরি। তার প্রেক্ষিতে দেশভাগের কথা তোলেন অমিত শাহ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং