৭ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

প্রধানমন্ত্রীর সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে রাজনৈতিক টুইট, একযোগে সরব তৃণমূল-সহ বিরোধীরা

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: December 8, 2021 4:30 pm|    Updated: December 8, 2021 4:30 pm

PM's Laal Topi tweet From official handle provokes opposition attack | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রীর সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে রাজনৈতিক টুইট! গতকাল উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরে গিয়ে সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদবকে নিশানা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন , ‘লাল টুপি’ উত্তরপ্রদেশে ক্ষমতায় আসতে চাইছে। তবে সন্ত্রাসবাদীদের প্রতি তারা দুর্বল, তাদের জেলমুক্ত করতে চায় এরা। প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য টুইট করা হয় PMO-র অফিশিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকেও। সেটা নিয়েই যত বিতর্ক। বিরোধীদের প্রশ্ন, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর তো নিরপেক্ষ। সেটা চলে জনগণের করের টাকায়। তাহলে সেখান থেকে রাজনৈতিক টুইট কেন করা হবে?

প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে রাজনৈতিক টুইটের প্রতিবাদে সরব হয়েছেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র (Mahua Moitra)। তাঁর বক্তব্য, “প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর চলে করদাতাদের টাকায়। সেখানে কাজ করেন আইএএস অফিসাররা। তাহলে কোন অধিকারে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের অফিশিয়াল হ্যান্ডেল ‘লাল টুপি’র মতো টুইটের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে। সবার মস্তিষ্কেরই কি গৈরিকিকরণ করা হয়েছে?”

[আরও পড়ুন: CDS Bipin Rawat: এই প্রথম নয়, বহুবার দুর্ঘটনার মুখে পড়েছে Mi-17 হেলিকপ্টার]

যাকে উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই কটাক্ষ করেছেন, সেই অখিলেশ যাদবের (Akhilesh Yadav) বক্তব্য, প্রধানমন্ত্রী অকারণে কুকথা বলছেন। বাংলার মানুষ যেভাবে বিজেপিকে শিক্ষা দিয়েছিল, ঠিক একইভাবে উত্তরপ্রদেশের মানুষও গেরুয়া শিবিরকে শিক্ষা দেবে। স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছে মোদি আতঙ্কে ভুগছেন। আম আদমি পার্টির (AAP) তরফে সাংসদ সঞ্জয় সিং বলছেন, প্রধানমন্ত্রীর সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে এই ধরনের ভাষা ব্যবহার করা ঠিক নয়। প্রধানমন্ত্রী নিজেও ‘কালো টুপি’ পরেন।

[আরও পড়ুন: তামিলনাড়ুতে ভেঙে পড়ল সেনা চপার, ছিলেন সেনা সর্বাধিনায়ক বিপিন রাওয়াত]

বস্তুত, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল সাধারণত ব্যবহার করা হয় প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন কর্মসূচি, সরকারি সফরসূচি, বিদেশ সফরের তথ্য এবং সরকারি অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরার জন্য। সেই সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে রাজনৈতিক টুইট কাম্য নয় বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে