৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কংগ্রেসের টালমাটাল পরিস্থিতিতে দলের মধ্যেই একাধিক আওয়াজ উঠেছে তাঁকে পরবর্তী সভানেত্রী করা হোক। রাহুল গান্ধীর ইস্তফার পর দলের শীর্ষ নেতৃত্ব আগামিদিনে রাজনৈতিক রণকৌশল নির্ধারণের জন্য তাঁরই মুখাপেক্ষী হয়ে রয়েছে। এহেন পরিস্থিতিতে শুক্রবার তাঁর গাড়ি আটকাল উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে মির্জাপুরের কাছে আটকায় যোগীর পুলিশ। প্রতিবাদে রাস্তাতেই ধরনায় বসেন প্রিয়াঙ্কা। জানা গিয়েছে, সোনভদ্র জেলায় জমি বিবাদে নিহত আদিবাসীদের পরিজনদের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিলেন তিনি। সেই পথেই তাঁকে আটকায় পুলিশ। জানা গিয়েছে, তাঁকে আটক করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: রাতভর কর্নাটক বিধানসভায় বিজেপি বিধায়করা, শুক্রবার হতে পারে আস্থা ভোট]

প্রসঙ্গত, সোনভদ্র জেলার ঘোরাভল তহসিলের উভ্ভা গ্রামে জমি বিবাদের জেরে গত বুধবার ১০ জন আদিবাসী নিহত হন। আহত হন ২৪ জনেরও বেশি। গুজ্জর ও গোন্ড সম্প্রদায়ের মধ্যে এই বিবাদের জেরে এলাকা রণক্ষেত্রের আকার নেয়। ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে পুলিশ ২৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। মামলা দায়ের হয়েছে ৭৮ জনের নামে। বাকিদের ধরার জন্য পুলিশি তল্লাশি চলছে। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ডিজিকে নির্দেশ দিয়েছেন, দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার। বৃহস্পতিবার ঘটনার প্রতিবাদে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভায় বিক্ষোভ দেখান বিরোধীরা। বাধ্য হয়ে ৪০ মিনিটের জন্য মুলতুবি করা হয় অধিবেশন।

তার মধ্যেই শুক্রবার সকালে নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিলেন প্রিয়াঙ্কা। কিন্তু মির্জাপুরের কাছে তাঁর গাড়ি আটকায় পুলিশ। রাজ্যে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে তুলছে বিরোধীরা। এবার প্রিয়াঙ্কার গাড়ি আটকানোয় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়েছে। কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জানিয়েছেন, ‘আমাদের এভাবে দমানো যাবে না। আমরা শান্তিপূর্ণভাবে নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিলাম। জানি না, আমাদের কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। নিহতদের সুবিচারের জন্য আমরা যেকোনও জায়গায় যেতে প্রস্তুত।’ যদিও আটক করার অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন ডিজি ওমপ্রকাশ সিং। তিনি জানিয়েছেন, এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি রয়েছে। তাই অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী-সহ কংগ্রেস কর্মীদের নিরাপদ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। প্রশাসনিক নির্দেশেই কংগ্রেস নেত্রীকে আটকানো হয়েছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং