১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৮  রবিবার ১৬ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

করোনা আক্রান্ত মাকে রাস্তায় ফেলে গেলেন ছেলে, বেঘোরে মৃত্যু মহিলার

Published by: Arupkanti Bera |    Posted: April 26, 2021 1:42 pm|    Updated: April 26, 2021 9:56 pm

Police registered a case against a man who allegedly abandoned his mother by the roadside in Kanpur city। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কয়েক দিন ধরে রাস্তায় পড়েছিলেন করোনা (Corona Virus) আক্রান্ত এক মহিলা। অবশেষে তাঁকে তুলে হাসপাতালে ভরতি করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। শেষ পর্যন্ত সেখানে তাঁর মৃত্যুই হয়। আর এর জন্য তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। কারণ তিনি নাকি তাঁর মাকে অসুস্থ অবস্থায় রাস্তায় ফেলে গিয়েছিলেন। উত্তরপ্রদেশের কানপুরের (Kanpur) এই ঘটনায় নিন্দার ঝড় উঠেছে। 

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশে শববাহী যান না মেলায় বাবার দেহ গাড়ির ছাদে বেঁধে শ্মশানে ছেলে]

কানপুর ক্যান্টনমেন্ট এলাকার বাসিন্দা বিশাল। সম্প্রতি তাঁর মায়ের শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। অবস্থার অবনতি হতে আরম্ভ করে। এর পর বিশাল তাঁর মাকে নিয়ে গিয়ে চাকেরি এলাকায় বোনের বাড়ির সামনে এক রকম ফেলে দিয়ে পালিয়ে আসেন। এবার বিশালের বোনও মায়ের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করেন। করোনা আক্রান্ত সন্দেহ করায় বিশালের বোন মাকে ঘরেই ঢুকতে দেননি। রাস্তাতেই পড়েছিলেন ওই মহিলা। অবশেষে স্থানীয় কয়েকজন তাঁকে উদ্ধারে এগিয়ে আসেন।

[আরও পড়ুন: অনুমতি মেলেনি চিকিৎসকদের, প্রথমবার বিধানসভা ভোট দিচ্ছেন না বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য]

মহিলাকে রাস্তার ধারে পড়ে থাকতে দেখে কয়েকজন সেটি ক্যামেরাবন্দি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে দেয়। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি বাড়ির বাইরে রাস্তার ধারে ওই মহিলা একটি কম্বল মুড়ি দিয়ে শুয়ে রয়েছেন। ভিডিওটি নজরে পড়তেই স্থানীয় থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে আসে। একটি অ্যাম্বুল্যান্স এনে মহিলাকে উরসুলা হাসপাতালে ভরতি করেন। সেখানে চিকিৎসা চলার সময়ই তাঁর মৃত্যু হয়। মাকে এভাবে রাস্তায় ফেলে রেখে যাওয়ার জন্য বিশালের বিরুদ্ধে পুলিশ অভিযোগ দায়ের করেছে। ডিসিপি অনুপ সিং সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, পুলিশ ভিডিওটি দেখেই ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার ছেলেই তাঁকে সেখানে ফেলে রেখে গিয়েছে। তদন্ত চলছে।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement