BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আত্মসম্মান খোয়াতে পারবেন না, কংগ্রেস ছেড়ে শিব সেনায় প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: April 19, 2019 3:01 pm|    Updated: April 19, 2019 3:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নেতৃত্বের একাংশের হস্তক্ষেপে মহিলাদের হেনস্তাকারীরাই দলে বেশি করে সুযোগ পাচ্ছে। তাঁর অভিযোগে তোলপাড় শুরু হয়ে যায় দলের অন্দরে। শেষপর্যন্ত কংগ্রেসে ছাড়লেন মহিলা নেত্রী ও সর্বভারতীয় মুখপাত্র প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী। রাহুল গান্ধীকে ইস্তফাপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন তিনি। চিঠিতে প্রিয়াঙ্কা লিখেছেন, ‘গত কয়েক সপ্তাহে ঘটনাপ্রবাহ দেখে আমি নিশ্চিত যে, সংগঠনে আমার কাজের কোনও মূল্য নেই। আমি ধৈর্য্যের শেষসীমায় পৌঁছে গিয়েছি। আমি মনে করি, আর বেশি দিন দলে থাকলে, আত্মসম্মান খোয়াতে হবে।’ বস্তুত, পদত্যাগের সিদ্ধান্ত ঘোষণার আগেই নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে ‘ন্যাশনাল স্পোকসপার্সন, এআইসিসি’ শব্দটিও সরিয়ে ফেলেন প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী। এমনকী, কংগ্রেসের মিডিয়া সেলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকেও বেরিয়ে যান তিনি। পদত্যাগের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই শিব সেনায় যোগ দিলেন প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী।

 [আরও পড়ুন: গুজরাটে জনসভার মঞ্চে চড় খেলেন হার্দিক প্যাটেল, হতভম্ব কংগ্রেস নেতা]

কিন্তু, দলের নেতৃত্বের বিরুদ্ধে কংগ্রেসের সদ্য প্রাক্তন এই মহিলা নেত্রীর ক্ষোভের কারণটা কী? দিন কয়েক আগে প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী অভিযোগ করেছিলেন যে, উত্তরপ্রদেশে কিছু নেতা তাঁকে হেনস্তা করেছে। দলের অভ্যন্তরে তদন্তের ভিত্তিতে অভিযুক্ত নেতাদের সাসপেন্ডও করে কংগ্রেস নেতৃত্ব। তখনকার মতো সমস্যা মিটে যায়। যথারীতি দলের হয়ে কাজও করছিলেন প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী। কিন্তু, এই মহিলা কংগ্রেস নেত্রীকে হেনস্তার অভিযোগে যাদের দল বহিষ্কার করা হয়েছিল, ভোটের মুখে ফের তাদের পুনর্বহালের সিদ্ধান্ত নেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক ও উত্তরপ্রদেশে দলের পর্যবেক্ষক জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। তাঁর এই সিদ্ধান্তই মেনে নিতে পারেননি কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী। গত বুধবার দলের নেতৃত্বের একাংশের বিরুদ্ধে মহিলাদের হেনস্তাকারীদেরই মদত দেওয়ার অভিযোগ এনেছিলেন তিনি। আর শুক্রবার কংগ্রেস ছাড়লেন প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী।

কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে চিঠি লিখে প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী অভিযোগ করেছেন, ‘দল মহিলাদের নিরাপত্তা, সম্মান ও ক্ষমতায়নের কথা বলছে। কিন্তু, দলের সদস্যদের একাংশে কাজে তা প্রতিফলিত হচ্ছে না। কংগ্রেসের হয়ে কাজ করতে গিয়ে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের ব্যক্তিগত আক্রমণের মুখেও পড়তে হয়েছে। কিন্তু কখনও কোনও অভিযোগ করিনি, দলের কাছে পুরস্কারও চাইনি।’ গত কয়েক বছরে জাতীয় স্তরে কার্যত কংগ্রেসের মুখ হয়ে উঠেছিলেন প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী। লোকসভা ভোট চলাকালীন তাঁর ইস্তফার সিদ্ধান্তে কংগ্রেস বড়সড় ধাক্কা খেল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement