BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ফের সভাপতি হবেন রাহুল! নির্বাচন ঘোষণা করেও প্রত্যাবর্তনের পথ প্রশস্ত করছে কংগ্রেস

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 25, 2020 1:53 pm|    Updated: August 25, 2020 1:53 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২৩ জন প্রথম সারির নেতার লেখা সাত পাতার চিঠি। সেই নিয়ে ৭ ঘণ্টার কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক। দোষারোপ, পালটা দোষারোপ, উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়। কিন্তু নিট ফল সেই যা ছিল তাই-ই। কোনও পরিবর্তন হয়নি কংগ্রেসের নেতৃত্বে। অন্তর্বর্তীকালীন সভানেত্রী হিসেবে সোনিয়াকেই (Sonia Gandhi) বহাল রাখা হয়েছে। যে সমস্ত নেতারা বিদ্রোহ করেছিলেন, তাঁদের মধ্যে কয়েকজনও দিনের শেষে গান্ধীদের প্রতি আনুগত্য দেখিয়েছেন।

পরিবর্তন বলতে শুধু একটাই হয়েছে। সেটা হল নির্বাচন ঘোষণা। সোমবারের ৭ ঘণ্টার বৈঠকের পর কংগ্রেস জানিয়েছে, আগামী মাস ছ’য়েকের মধ্যেই সোনিয়াকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হবে, এবং এআইসিসির (AICC) অধিবেশন ডেকে পূর্ণ সময়ের সভাপতি নিয়োগ করা হবে। কিন্তু এই নির্বাচন ঘোষণা করলেও, দল যে রাহুল গান্ধীকেই (Rahul Gandhi) ফের সভাপতি পদে চাইছে, তাও জানিয়ে দিয়েছেন কংগ্রেসের প্রধান মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা। দলের সভাপতি নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেছিলেন,”পরবর্তী সভাপতি নির্বাচনের জন্য এআইসিসির অধিবেশন ডাকা হবে। আর এটা সকলের ইচ্ছা এবং আমারও যে, রাহুল গান্ধীই ফের সভাপতি হোন।”

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশে চরমে ‘গুন্ডারাজ’! ফের প্রকাশ্যে গুলি করে মারা হল সাংবাদিককে]

অনেকে বলছেন, ২৩ জন বিদ্রোহী নেতার চিঠি প্রকাশ্যে আসার পর কংগ্রেসের অন্দরে গান্ধীদের অবস্থান যে কতটা মজবুত, তা আরও একবার প্রমাণ হয়ে গিয়েছে। চার কংগ্রেস (Congress) শাসিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে রাহুল-সোনিয়াকে সমর্থন করেছেন। তাঁদের সাফ কথা, রাহুল যদি দায়িত্ব নিতে রাজি থাকেন তাহলে তাঁকেই দায়িত্ব দেওয়া হোক। আর তিনি যদি নেহাত রাজি না থাকেন, তাহলে কাজ চালিয়ে যান সোনিয়া। দলের লোকসভার সব সাংসদেরও একই বক্তব্য। শুধু যে দুজন ওই চিঠিতে সই করেছেন, সেই মনীশ তিওয়ারি এবং শশী থারুর ছাড়া বাকি সকলেই চাইছেন নেতৃত্ব থাক গান্ধী পরিবারের হাতে। এমনকী, কদিন আগে যিনি বিদ্রোহ করেছিলেন সেই শচীন পাইলটও গান্ধীদের সমর্থনে সুর চড়িয়েছেন। কংগ্রেসের বেশিরভাগ নেতার ধারণা, গান্ধী পরিবারের বাইরে কেউ সভাপতি হলে দলে ভাঙন আরও বাড়বে। আর তাঁরা প্রায় সকলেই চান রাহুল গান্ধী ফের দায়িত্ব নিন। কংগ্রেস নেতাকর্মীদের বিশ্বাস, জনপ্রিয়তার নিরিখে মোদিকে যদি কেউ টক্কর দিতে পারেন, তাহলে তিনি হলেন একমাত্র রাহুল গান্ধী।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement