১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাফালে অস্ত্রে মোদি সরকারকে ঘায়েল করতে তৎপর কংগ্রেস

Published by: Tanujit Das |    Posted: August 19, 2018 10:58 am|    Updated: August 26, 2018 12:28 pm

Rahul Gandhi-led Congress not in a mood to spare the Narendra Modi -led NDA government over the controversial Rafale fighter jet deal

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাতিয়ার রাফালে যুদ্ধবিমান৷ কেন্দ্রের মোদি সরকারের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে বৃহত্তর প্রচারে নামার প্রস্তুতি শুরু করল কংগ্রেস। রাফালে যুদ্ধবিমান ক্রয়চুক্তি-সহ বিভিন্ন ‘দুর্নীতি’র অভিযোগগুলি নিয়ে মাসব্যাপী দেশের সর্বত্র বিক্ষোভ কর্মসূচি গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। এই বিষয়ে রূপরেখা তৈরি করেছে বিশেষভাবে গঠিত একটি টাস্কফোর্স৷ যাতে রয়েছে কংগ্রেসের একাধিক শীর্ষ নেতা৷ তৎপর হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দলের সমস্ত সাধারণ সম্পাদক, বিভিন্ন রাজ্যে সাংগঠনিক দায়িত্বে থাকা এআইসিসির নেতা, সব প্রদেশ নেতা-সহ দলের গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের৷

[পাক সেনাপ্রধানকে আলিঙ্গন সিধুর, ছবিতে জুতো মেরে প্রতিবাদ ক্ষুব্ধ জনতার ]

জানা গিয়েছে, টাস্কফোর্সের মাথায় রয়েছে কংগ্রেস মুখপাত্র রনদীপ সুরজেওয়ালা ও জয়পাল রেড্ডি৷ এছাড়া ফোর্সের সদস্য করা হয়েছে, অর্জুন মোধওয়াদিয়া, শক্তি সিং গোহিল, প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদি, জয়বীর শেরগিল ও পাওয়ান খেরকে৷ আগামী ২৫ আগস্ট থেকে কাজ শুরু করবে এই টাস্ক ফোর্স৷ দলের মুখপাত্র রনদীপ সুরজেওয়ালা সাংবাদিকদের জানান, বিশেষভাবে রাফালে ইস্যু-সহ মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ওঠা বিভিন্ন দুর্নীতি এবং কেলেঙ্কারিগুলি সারা দেশের জনতার সামনে তুলে ধরার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী ৩০ দিন কংগ্রেস কর্মীরা জেলা ও রাজ্যস্তরে বিক্ষোভ প্রদর্শন করবেন। এই ব্যাপারে স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ তদন্ত এবং অবিলম্বে যৌথ সংসদীয় কমিটি গঠনের দাবি তুলবে। তিনি আরও বলেন, রাফালে ইস্যু কংগ্রেসের অন্দরে বিশদে আলোচনা হয়েছে। দেখা গিয়েছে, এই চুক্তির ফলে সরকারি কোষাগারে ৪১ হাজার কোটি টাকা লোকসান হয়েছে। এই কংগ্রেস মুখপাত্রের অভিযোগ, হিন্দুস্তান অ্যারোনটিকস লিমিটেড (হ্যাল)-এর থেকে বরাদ ছিনিয়ে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রর মোদির বন্ধুর সংস্থার সঙ্গে ৩০ হাজার কোটি টাকার চুক্তি করা হয়েছে৷

শুরু থেকেই রাফালে ইস্যুতে কেন্দ্রের মোদি সরকারকে চাপে রাখার কৌশল নিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। এর আগেও দলের নেতাদের তিনি রাফালে ইস্যু জিইয়ে রাখার জন্য একাধিকবার নির্দেশ দিয়েছেন। সম্প্রতি নির্বাচনমুখী রাজস্থানের জয়পুরে একটি দলীয় সভাতেও তিনি এই নিয়ে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, ইউপিএ সরকার রাফালে যুদ্ধ বিমান নিয়ে যে চুক্তি করে তা ছিল মাত্র ৫৪০ কোটি টাকার। আর মোদি সরকার আসার পরেই সেই যুদ্ধ বিমান ১৬০০ কোটি টাকা দিয়ে কেনা হচ্ছে। প্রতিরক্ষায় এর চেয়ে বড় দুর্নীতি কখনও হয়নি বলে অভিযোগ করেন রাহুল৷

[কেরলে বন্যা দুর্গতদের সাহায্যার্থে ক্রীড়ামহল, পাশে থাকার বার্তা মেসিদের]

রাহুল গান্ধী সংসদের বাদল অধিবেশনেও রাফাল ইস্যুতে সরব হয়েছেন। কংগ্রেস ২০০৮ সালে ইউপিএ-র আমলের রাফালে চুক্তির প্রতিলিপি প্রকাশ করেছে। কংগ্রেসের দাবি, বিমানের দাম নিয়ে গোপনীয়তার শর্ত ছিল না সেই চুক্তিতে। কংগ্রেসের তরফে বলা হচ্ছে, ইউপিএ আমলে প্রতি রাফালের দাম পড়ছিল ৫২৬.১০ কোটি টাকা। এখনকার চুক্তিতে দর ১৬৭০.৭০ কোটি টাকা। কংগ্রেস প্রশ্ন তুলেছে, রাফালে কিনতে কেন অতিরিক্ত খরচ করা হচ্ছে? রাফালে নিয়ে মোদি সরকারের চুক্তিতে যদি গোপনীয়তাই থাকবে, তবে আগের প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা সংসদে দাঁড়িয়ে একাধিকবার দাম বললেন? আগের চুক্তিতে থাকে এইচএএল-কে সরিয়ে নতুন চুক্তিতে কেন রিলায়্যান্স ডিফেন্স লিমিটেডকে যুক্ত করা হল?

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে