BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ডায়াপার পরা ছাড়ুন এবার, রাহুলকে কটাক্ষ সিদ্ধার্থনাথের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 9, 2017 2:58 pm|    Updated: October 9, 2017 2:58 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মোদি জমানায় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের ছেলের ব্যবসায়িক শ্রীবৃদ্ধির অভিযোগকে ঘিরে শোরগোল জাতীয় রাজনীতিতে। ঘটনায় খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ‘দুর্নীতির ভাগীদার’  বলে কটাক্ষ করেছেন কংগ্রেস সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধী। সেই কটাক্ষেরই পালটা দিলেন বিজেপি নেতা ও উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী সিদ্ধার্থনাথ সিং। রাজীবপুত্রকে ডায়াপার থেকে বেরিয়ে আসার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

[‘ভিত্তিহীন কুৎসা’ রটানোর অভিযোগে মানহানির মামলা অমিত শাহর পুত্রের]

বিতর্কের সূত্রপাত রবিবার। এক অনলাইন নিউজ পোর্টালের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, মোদি জমানায় গত এক বছরের অমিত শাহের ছেলে জয়ের ব্যবসা ১৬ হাজার গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই এই অভিযোগকে গুরুত্ব দিতে নারাজ বিজেপি। রবিবারই সাংবাদিক সম্মেলন করে অনলাইন নিউজ পোর্টালে প্রতিবেদনকে মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি করেন রেলমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা পীষূষ গোয়েল। সোমবার  আমেদাবাদের আদালতে  অনলাইন নিউজ পোর্টালের সম্পাদক-সহ ৭ জনের বিরুদ্ধে ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলাও দায়ের করেছেন অমিত শাহের ছেলে জয়। কিন্তু শাসকদলের বিরুদ্ধে এমন হাতেগরম অভিযোগ পেয়ে চুপ করে বসে নেই বিরোধীরাও। ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এ বিষয়ে তদন্তের দাবি জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল। টুইট করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে বিঁধেছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘শাহরা দেশকে লুট করেছেন। প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে পাহারাদার হওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু, তিনিও যে দুর্নীতির ভাগীদার হয়ে গিয়েছে, তারই প্রমাণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী।’

 

তবে রাহুল গান্ধী যতই কড়া ভাষায় প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করুন না কেন, তাঁকে বিশেষ পাত্তা দিতে নারাজ বিজেপি নেতা সিদ্ধার্থনাথ সিং। বরং তাঁর দাবি, রাহুল গান্ধী অভিযোগ সম্পর্কে ঠিকভাবে অবগতই নন। সিদ্ধার্থনাথ সিং বলেন, ‘রাহুল গান্ধীর ডায়াপার থেকে বেরিয়ে আসা উচিত। উনি টুইট করেছেন, নোট বাতিলের সিদ্ধান্তে একমাত্র জয় শাহ লাভবান হয়েছেন। কিন্তু, ২০১৬ সালের অক্টোবরেই জয় শাহ নিজের ব্যবসা গুটিয়ে ফেলেছিলেন। তাহলে তিনি কীভাবে নোট বাতিলের সিদ্ধান্তে উপকৃত হবেন?’ প্রসঙ্গত, গত বছরের নভেম্বর মাসে নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

[ফের কাঠগড়ায় যোগীর রাজ্য, ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৬ শিশুর]

জয় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের ছেলে। তবে তিনি কেন্দ্রের শাসকদলের সঙ্গে যুক্ত নন। তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের জবাব কেন বিজেপির মন্ত্রীরা দিচ্ছেন? এই প্রশ্নের মুখে পড়েন সিদ্ধার্থনাথ সিং। এই বিজেপি নেতা ও মন্ত্রীর সাফাই, বিরোধীরা যে রাজনৈতিক অভিযোগ তুলেছে, তিনি শুধু তারই জবাব দিচ্ছেন।

[ডিজেলের উপর জিএসটি চালুর দাবিতে ধর্মঘটে ট্রাক মালিকরা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে