১৭  শ্রাবণ  ১৪২৯  রবিবার ৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রেলে শ্লীলতাহানিতে তিন বছরের সাজার ভাবনা

Published by: Shammi Ara Huda |    Posted: September 25, 2018 10:08 am|    Updated: September 25, 2018 10:08 am

Rail to implement 3 years imprisonment for molestation accused

সুব্রত বিশ্বাস: মহিলা যাত্রীদের কাছে রেলপথে যাত্রাটা মোটেই নিরাপদ নয়। বিষয়টাকে একেবারে ধ্রুবসত্য বলে মেনে নিয়েছে রেল। মহিলাদের নিরাপত্তায় আরও কঠোর মনোভাব নিচ্ছে। ট্রেনে মহিলাদের শ্লীলতাহানি হলে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে তিন বছর জেলের ঘানি টানতে হবে। এজন্য মহিলা সুরক্ষিত রেল আইন বদলের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

ট্রেনে প্রায়ই মহিলাদের যৌন নিগ্রহের মতো ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের ঘটনা অমূলক নয়, পাশাপাশি শ্লীলতাহানির মতো ঘটনা আকছার ঘটছে। এই ধরনের ঘটনায় আরপিএফই আইনগত ব্যবস্থা নেবে। এখন অবশ্য এই ঘটনায় আরপিএফএর কোনও কিছু করার আইনগত ক্ষমতাই নেই। সব ক্ষমতাই জিআরপির। আরপিএফ এমন ঘটনায় যুক্ত অপরাধীকে ধরলেও তাকে জিআরপির হাতে তুলে দিত, কারণ এই মুহূর্তে আরপিএফের হাতে কোনও ক্ষমতা নেই। কিন্তু এই আইন বদলে অপরাধীকে ধরা থেকে আইনগত পদক্ষেপে আদালতে পাঠানো থেকে সাজা দেওয়ার সব ক্ষমতাই থাকবে আরপিএফের হাতে।

[প্রধানমন্ত্রী চোরেদের সর্দার! ‘প্রমাণ’ দিয়ে বিস্ফোরক টুইট রাহুলের]

আইন প্রয়োগের ক্ষমতা হাতে এলে ধরপাকড় বাড়ার আশঙ্কা করেছেন যাত্রীদের একাংশ। যদিও রেল আইনে ৩৬টি ধারায় আরপিএফ এখন গ্রেপ্তার করে। এছাড়া আরপিইউপি আইনে রেল সম্পদ পাওয়া গেলে ওয়ারেন্ট ছাড়াই গ্রেপ্তার করতে পারে আরপিএফ। রেল আইনে জরিমানা ৫০০ থেকে ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত করতে পারে আরপিএফ। ম্যাজিস্ট্রেট অবশ্য জরিমানার পরিমাণ কমানোর অধিকারী। তবে আরপিএফ কর্মীরা অধিকাংশ সময়ে এই আইনকে নিজেদের আয়ের পথ করে নিয়ে থাকেন। মুহুরির মারফত জরিমানা করিয়ে মোটা অংকের টাকা আদায় করা হয় বলে বহু অভিযোগ উঠেছে। রাজ্যসভায় এক প্রশ্নের উত্তরে রেল জানিয়েছে, ২০১৪-২০১৬ সালে ট্রেনে মহিলাদের যৌন নির্যাতনের সংখ্যা বেড়েছে ৩৫ শতাংশ। অপরাধের তালিকায় ১৬০৭টি অভিযোগই মহিলাদের ট্রেনে যৌন নির্যাতন নতুবা শ্লীলতাহানির। ২০১৪-তে এই ধরনের অভিযোগ হয়েছে ৪৪৮টি।  ২০১৫-তে তা বেড়ে হয় ৫৫৩টি, ২০১৬-তে ৬০৬টি। বেড়ে চলা এই অপরাধে লাগাম না টানলে আগামী দিন ভয়াবহ হয়ে উঠবে বলে মনে করেছেন রেলকর্তারা।

আরপিএফের এক কর্তার কথায়, মহিলাদের সুরক্ষায় আলাদা লেডিজ স্পেশ্যাল থেকে আলাদা কামরা সবই থাকা সত্ত্বেও এই ধরনের নির্যাতন অব্যাহত রয়েছে। এজন্য মহিলা কামরায় পুরুষ যাত্রীদের চড়াটা নিষিদ্ধ। তবুও অনেকেই ওঠেন ওই কামরায়। ধৃতদের কাছ থেকে জরিমানার পরিমানা ৫০০ টাকা। এই জরিমানা ও দ্বিগুন অর্থাৎ ১,০০০ টাকা করার চিন্তু শুরু হয়েছে। এজন্য ১৬২ ধারার পরিবর্তনের চেষ্টাও চলছে।

[পাকিস্তানকে শায়েস্তা করতে ফের সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের ইঙ্গিত সেনাপ্রধানের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে