BREAKING NEWS

২৮ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

তৃতীয় দিনের জেরা শেষ, মঙ্গলবার ফের তলব রাজীব কুমারকে

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 11, 2019 7:57 pm|    Updated: February 11, 2019 8:02 pm

An Images

মণিশংকর চৌধুরি, শিলং: লাগাতার তিনদিন ম্যারাথন জেরা। তবে রাজীব কুমারের জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব এখনও শেষ হয়নি। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার ফের তাঁকে ডাকা হয়েছে শিলংয়ের ওকল্যান্ডের সিবিআই দপ্তরে। দ্বিতীয় দিনের মতো তৃতীয় দিনও তাঁকে ফের প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ কুণাল ঘোষের মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হয়। এদিন সকাল পৌনে ১১ টা নাগাদ সিবিআই দপ্তরে ঢোকেন সিপি। তাঁর জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হয় সাতটা নাগাদ। এদিন মূলত সারদা তদন্ত সংক্রান্ত প্রশ্ন করা হলেও, রোজভ্যালি কাণ্ড নিয়েও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে রাজীব কুমারকে।

[সিবিআই দপ্তরে হাজির রাজীব ও কুণাল, প্রশ্নমালা নিয়ে তৈরি তদন্তকারীরা]

জেরার দ্বিতীয় দিনে রাজীব কুমার এবং কুণাল ঘোষকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়। রবিবার সন্ধেবেলাতেই শিলংয়ে পৌঁছান রোজভ্যালি কান্ডের তদন্তকারী আধিকারিক সোজম শেরপা। তখনই পরিষ্কার হয়ে যায় তৃতীয় দিন সারদার পাশাপাশি রোজভ্যালি কাণ্ড নিয়েও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এদিন দুজনকে মুখোমুখি বসিয়ে সারদা এবং রোজভ্যালির সাঁড়াশি চাপে বিদ্ধ করার চেষ্টা করেন সিবিআই আধিকারিকরা। সিবিআই সূত্রের খবর, মোট ২৫০-৩০০ টি প্রশ্নের একটি প্রশ্নমালা তৈরি করা হয়েছিল। দু’দফায় এই প্রশ্নগুলিই করা হয়। প্রায় আড়াই ঘণ্টা কুণাল এবং রাজীবকে মুখোমুখি জেরা করা হয়। সিবিআই সূত্রের খবর, এখনও অনেক প্রশ্নের উত্তর তাঁরা পাননি। আর সেকারণেই রাজীব কুমারকে মঙ্গলবার ফের তলব করা হয়েছে। তবে, মঙ্গলবার মূলত রোজভ্যালি নিয়েই তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে সূত্রের খবর।তৃতীয় দিনের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে কুণাল ঘোষ দাবি করেন, এই প্রথমবার তাঁকে সামনাসামনি বসিয়ে রাজীব কুমারের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এটাই তাঁর নৈতিক জয়।

[“রাহুল ফেল করা ছাত্র, ‘টপার’ মোদিকে হিংসা করে”, কটাক্ষ জেটলির]

এদিন সকাল পৌনে ১১ টা নাগাদ সিবিআই দপ্তরে ঢোকেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার। কুণাল ঘোষ অবশ্য তাঁর বেশ খানিকটা আগেই সিবিআই অফিসে পৌঁছে যান। কুণাল ঘোষকে এদিন অনেকটাই আত্মবিশ্বাসী দেখাচ্ছিল। সে তুলনায় রাজীব কুমার কিছুটা হলেও উদ্বিগ্ন ছিলেন। প্রথম দিন আট ঘণ্টা জেরার পর রাজীব কুমারকে দ্বিতীয় দিনেও ম্যারাথন জেরা করেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা দপ্তরের আধিকারিকরা। তৃতীয় দিনেও সেই ধারা অব্যাহত ছিল। রাজীব কুমারকে চতুর্থ দিন জেরার জন্য ফের তলব করা হয়েছে৷ তবে কুণাল ঘোষকে আর তলব করা হবে না বলেই সূত্রের খবর।

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement