BREAKING NEWS

৬ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আলোয়ার গণপিটুনি ইস্যুতে সংসদে হট্টগোল, মুলতুবি রাজ্যসভার অধিবেশন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 23, 2018 11:38 am|    Updated: July 23, 2018 11:38 am

Rajyasava adjourned over Alwar Lynching case

প্রতীকী ছবি।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গোরক্ষার নামে গণপিটুনি আলোয়ারে। গো-ভক্তদের দাদাগিরিতে মৃত্যু রাকবর খানের। রাজস্থানের আলোয়ারের এই ঘটনায় এখন সরগরম জাতীয় রাজনীতি। রাজস্থানের গণ্ডি পেরিয়ে ঘটনার প্রভাব দিল্লিতেও। সংসদের অধিবেশনের শুরুতেই আলোয়ার নিয়ে সরকারকে কোণঠাসা করল বিরোধীরা।

[জুতো পায়ে আরতি! মোদির ‘রামভক্তি’ নিয়ে প্রশ্ন দিগ্বিজয়ের]

এদিন সংসদের অধিবেশনের আগেই আলোয়ার গণপিটুনি ইস্যুতে মুলতুবি প্রস্তাব আনেন সিপিআইয়ের ডি রাজা। কংগ্রেস নেতা তথা লোকসভায় বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে অভিযোগ করেন, “সরকার ইচ্ছে করে এ ধরনের ঘটনাকে প্রশ্রয় দিচ্ছে। বিজেপি চায় না দেশে শান্তির পরিবেশ বজায় থাকুক। ” এদিকে সংসদের অধিবেশন শুরুর পর দু’কক্ষেই বিরোধীদের তীব্র আক্রমণের মুখে পড়তে হচ্ছে সরকারপক্ষকে। রাজ্যসভায় অধিবেশনের শুরুতেই বিরোধীদের হট্টগোলে অধিবেশন মুলতুবি করে দিতে হয়। কংগ্রেস সাংসদরা সংসদের বাইরেও বিক্ষোভ দেখানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

 

অন্যদিকে, বিজেপি নেতারা ক্রমাগত ঘটনাকে আড়াল করার চেষ্টা করছেন। গতকাল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়াল দাবি করেছিলেন, মোদিকে বদনাম করার জন্য বিরোধীরাই গোরক্ষাতে ইন্ধন জোগাচ্ছে। আজ আরেক বিজেপি বিধায়ক রাজা সিং এই ঘটনায় গোরক্ষকদের আড়াল করার চেষ্টা করলেন। তাঁর দাবি, যে রাকবরকে হত্যা করা হয়েছে, তাঁর নামে আগে থেকে গরু-পাচারের মামলা ছিল। সেজন্যই এই ধরণের ঘটনা ঘটছে।

[ইস্যু নেই তাই আলিঙ্গনের ‘নাটক’, রাহুলকে তোপ মোদির মন্ত্রীর]

অন্যদিকে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, পুলিশ তৎপরতা দেখালে বাঁচানো যেত রাকবরকে। কারণ, রাকবরকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে বেশ কিছুক্ষণ চা পানের জন্য দাঁড়িয়েছিলেন পুলিশ কর্মীরা। গুরুতর আহত রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে এহেন গাফিলতি কেন? প্রশ্ন উঠছে। আরেক প্রত্যক্ষদর্শী আবার অভিযোগ করছেন, রাকবরকে মারধরের সময় গোরক্ষকদের সঙ্গ দিয়েছেন পুলিশকর্মীরাও। সব মিলিয়ে, পুলিশ তথা প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিস্তর গাফিলতির অভিযোগের উঠছে। এদিকে, এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছেন কয়েকজন আইনজীবী। মামলার দ্রুত শুনানির আর্জিও জানানো হয়েছে। আগামী ২০ আগস্ট মামলার শুনানির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রাজস্থান ছাড়াও উত্তরপ্রদেশ এবং হরিয়ানায় ক্রমবর্ধমান গণপিটুনি সংক্রান্ত মামলা শুনবে সর্বোচ্চ আদালত।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে