BREAKING NEWS

২  ভাদ্র  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এমআরআই মেশিনে আটকে গেল মন্ত্রীমশাইয়ের অনুগত নিরাপত্তারক্ষীর বন্দুক

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 3, 2017 12:58 pm|    Updated: June 3, 2017 12:58 pm

Ram Manohar Lohia Hospital MRI machine pulls in UP Min Satyadev Pachauri's gunner's pistol

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মন্ত্রীমশাইয়ের ভীষণ ব্যামো৷ যখন-তখন মাথা ঘোরে৷ কী ব্যাপার? কী ব্যাপার? গেলেন ডাক্তারবাবুকে দেখাতে৷ ডাক্তারবাবু মন দিয়েই দেখলেন৷ বললেন, আরও গভীরভাবে দেখা প্রয়োজন৷ তাই ম্যাগনেটিক রেজোন্যান্স ইমেজিং অর্থাৎ এমআরআই-এর মাধ্যমে করতে হবে পরীক্ষা৷ ডাক্তারের কথা অক্ষরে অক্ষরে পালন করেছেন মহামান্য মন্ত্রী৷ সাধারণ রোগীদের অপেক্ষায় রেখেই এমআরআই কক্ষে চলেও যান তিনি৷ কিন্তু বিপত্তি বাধায় অনুগত নিরাপত্তারক্ষীর কোমরের বন্দুকটি৷ মন্ত্রীমশাইয়ের প্রতি আনুগত্যের খাতিরে তা নিয়ে এমআরআই কক্ষে প্রবেশ করে যান ওই নিরাপত্তাকর্মী৷ কিন্তু তাঁর বন্দুকের তো আর সে বালাই নেই! তাই সোজা নিরাপত্তারক্ষীর কোমর থেকে ছিটকে গিয়ে বেহায়ার মতো আটকে যায় এমআরআই মেশিনের গায়ে৷

[রামনবমী, হনুমান জয়ন্তীর পর এবার রথের রশিতে টান দেবে গেরুয়া শিবির]

ঘটনাটি ঘটেছে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশে৷ আর এই মহামান্য মন্ত্রীমশাই হলেন তারই মন্ত্রিসভার খাদি ও গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী সত্যদেব পচৌরি৷ লখনউয়ের ডা. রাম মনোহর লোহিয়া আয়ুর্বিজ্ঞান সংস্থানে এমআরআই করতে গিয়েছিলেন তিনি৷ সাধারণ রোগীদের বাইরে অপেক্ষায় রেখে আগেভাগে নিজের এমআরআই করতে গিয়েছিলেন মন্ত্রীমশাই৷ কিন্তু মনিবকে একা ছাড়তে চাননি অনুগত তাঁর নিরাপত্তারক্ষী মুকেশ৷ হাসপাতালের কর্মীরা বারণ করেছিলেন৷ কিন্তু তিনি কারও কথা শোনেননি৷ জোর করে কোমরে বন্দুক নিয়েই এমআরআই মেশিন রাখা কক্ষে ঢুকে যান৷ হাই পাওয়ারের মেশিনটি পুরোদমে চলছিল তখন৷ যার ফলে গোটা ঘরে চৌম্বক ক্ষেত্র তৈরি হয়েছিল৷ চুম্বকের টানে তাঁর কোমরের গুলিভর্তি বন্দুকটি এক ঝটকায় গিয়ে মেশিনের ভিতরে আটকে যায়৷ অবস্থা বেগতিক দেখে ঘর থেকে পালিয়ে বাঁচেন মন্ত্রীমশাই৷ কিন্তু মুকেশ গোঁ ধরে বসে থাকেন যে তাঁর বন্দুক না নিয়ে ওই ঘর কিছুতেই ছাড়বেন না৷ পরে হাসপাতালের আধিকারিকরা কোনওমতে তাঁকে বুঝিয়ে ঘর থেকে বের করেন৷

[ধর্ষণ ও তিন তালাকের জন্য দায়ী পশ্চিমি সভ্যতাই, দাবি আরএসএস নেতার]

কিছুদিন আগেই পাঁচ কোটি টাকা দিয়ে কেনা হয়েছিল ওই মেশিনটি৷ যার এই ঘটনার পুরোপুরি খারাপ হয়ে গিয়েছে৷ ঠিক করতে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা ব্যায় হবে বলে জানা গিয়েছে৷ কিন্তু তাতেও বেশ কিছুদিন সময় লাগবে৷ ততদিন সাধারণ রোগীদের আর সস্তায় এমআরআই করার কোনও উপায় থাকল না৷ সৌজন্যে মহামান্য মন্ত্রীমশাই আর তাঁর অনুগত নিরাপত্তাকর্মী৷

[‘ভারত-চিন সীমান্ত সমস্যা সত্ত্বেও একটিও গুলি চলেনি গত ৪০ বছরে’]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে