৩১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  শনিবার ১৫ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৩১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  শনিবার ১৫ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গুজরাটের জন্য স্বস্তির খবর। বৃহস্পতিবার বিকেলে সৌরাষ্ট্র উপকূলে আছড়ে পড়ার কথা ছিল ঘূর্ণিঝড় বায়ুর। কিন্তু আচমকাই নিজের দিক পরিবর্তন করল ঘূর্ণিঝড়টি। তবে গুজরাটের উপর থেকে বায়ু সরে গেলেও ভারী বর্ষণ হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। প্রবল বেগে বইবে ঝোড়ো হাওয়া। এদিকে বায়ুর প্রভাবে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে বর্ষা। তবে দক্ষিণবঙ্গে বৃহস্পতিবার বিকেলেও ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

আমেদাবাদের আবহাওয়া দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, বেরাবল, পোরবন্দর, দ্বারকার গা ঘেঁষে চলে যাবে বায়ু। ঘূর্ণিঝড়টি ক্রমশ সরে যাবে সমুদ্রের দিকে। তবে উপকূল অঞ্চলে প্রবল বৃষ্টিপাত ও ঝোড়ো হাওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। কিন্তু এর চেয়ে বেশি আর কোনও আশঙ্কার কথা জানায়নি হাওয়া অফিস। বেরাবল ও দ্বারকার উপর দিয়ে ১৪৫ থেকে ১৫৫ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

[ আরও পড়ুন: ছড়াচ্ছে জেহাদের বিষ, তামিলনাড়ুতে গ্রেপ্তার কুখ্যাত ইসলামিক স্টেট জঙ্গি ]

তবে বায়ুর গতিপথ পরিবর্তন হলেও হাই অ্যালার্ট উঠছে না গুজরাট থেকে। যতক্ষণ না ঘূর্ণিঝড় গুজরাট উপকূল থেকে দূরে চলে যাচ্ছে, ততক্ষণ জারি থাকবে সতর্কতা। পশ্চিম রেল ৭০টি ট্রেন বাতিল করেছে। বন্ধ রয়েছে ফেরি পরিষেবাও। এছাড়া বিমান ওঠানামার ক্ষেত্রেও সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে। বুধবার মধ্যরাত থেকে পোরবন্দর ও দিউ-সহ রাজ্যের বিমানবন্দরগুলিতে বন্ধ রাখা হয়েছে পরিষেবা। সেনা ও উদ্ধারকারী দলকেও তৈরি থাকতে বলেছে প্রশাসন। উদ্ধারকাজে মজুত থাকবে বায়ুসেনার কপ্টারও। প্রায় ৩ লক্ষ মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বুধবারের মতো বৃহস্পতিবারও বন্ধ থাকবে এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি। মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। যারা ইতিমধ্যেই সমুদ্রে চলে গিয়েছে, তাদের ফিরে আসতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার বিকেলের পূর্ব-মধ্য ভারতের দিকে ঘূর্ণিঝড় বায়ু ধেয়ে আসতে পারে বলে ছিল খবর। কেরল, কর্ণাটক ও দক্ষিণ মহারাষ্ট্রেও বায়ুর প্রভাব পড়বে বলে হাওয়া অফিসের তরফে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল। বৃহস্পতিবার গুজরাট উপকূলে আছড়ে পড়ার কথা ছিল ঘূর্ণিঝড়টির। কিন্তু শেষ মুহূর্তে বায়ুর অভিমুখ ঘুরে যাওয়ায় আপাতত স্বস্তিতে গুজরাট।

[ আরও পড়ুন: বাংলাকে ‘মিনি পাকিস্তান’ বানাচ্ছেন মমতা, বেনজির তোপ জেডিইউ-র   ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং