BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পাইলটদের বিধায়ক পদ বাতিলের মামলা প্রত্যাহার করলেন স্পিকার, নয়া জল্পনা রাজস্থানে

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 27, 2020 1:00 pm|    Updated: July 27, 2020 1:24 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজস্থান রাজনীতিতে নতুন জল্পনা। এবার শচীন পাইলট এবং তাঁর অনুগামীদের বিধায়ক পদ বাতিলের দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে করা মামলা প্রত্যাহার করে নিল কংগ্রেস। দলীয় সূত্রের খবর, আপাতত তারা এই লড়াইটা রাজনৈতিকভাবে লড়তে চায়। পরবর্তীকালে প্রয়োজন পড়লে হাই কোর্টের রায় বিবেচনা করে সুপ্রিম কোর্টে নতুন করে আবেদন করা যাবে।

উল্লেখ্য, একাধিকবার মুখ্যমন্ত্রীর ডাকা বৈঠকে হাজির না থাকায় শচীন পাইলট ও তাঁর ১৮ জন অনুগামী বিধায়ককে শোকজ নোটিস পাঠিয়েছিলেন রাজস্থান বিধানসভার স্পিকার সিপি যোশী। জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল, তিনদিনের মধ্যে বৈঠকে গরহাজিরার কারণ না দেখাতে পারলে তাঁদের বিধায়কপদ বাতিল হয়ে যাবে। স্পিকারের সেই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রাজস্থান হাই কোর্টের দ্বারস্থ হন পাইলট শিবিরের বিধায়করা। হাই কোর্টে জয় হয় পাইলট (Sachin Pilot) এবং তাঁর অনুগামীদেরই। জয়পুর হাই কোর্ট স্পিকার সিপি যোশীকে (CP Joshi) জানিয়ে দেয়, এখনই পাইলট ও তাঁর অনুগামীদের বিরুদ্ধে কোনওরকম ব্যবস্থা নিতে পারবেন না তিনি। হাই কোর্টের এই রায়ের আগেই অবশ্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন স্পিকার। তাঁর দাবি ছিল বিধায়কপদ বাতিল সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত শুধুমাত্র স্পিকারের উপর নির্ভর করে। এতে হাই কোর্ট হস্তক্ষেপ করতে পারে না। সোমবার শীর্ষ আদালতে এই মামলার শুনানি ছিল। কিন্তু শুনানি শুরু হতেই নিজের করা আবেদন প্রত্যাহার করে নেন স্পিকার। তাঁর যুক্তি, রাজস্থান হাই কোর্টের রায় পর্যবেক্ষণের পর তিনি ফের আদালতে আবেদন করবেন।

[আরও পড়ুন: ‘রাজনৈতিক কেরিয়ার শেষ হয়ে গেলেও সত্যি বলব’, চিন ইস্যুতে বিস্ফোরক রাহুল]

স্পিকার এই মামলা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় আপাতত পাইলটরা বড়সড় স্বস্তি পেলেন। তাঁদের মাথার উপর আর বিধায়কপদ বাতিলের খাঁড়া নেই। কারণ, রাজ্যপাল কলরাজ মিশ্র এখনও মুখ্যমন্ত্রী গেহলটকে বিধানসভা অধিবেশন ডাকার অনুমতি দেননি। এখন প্রশ্ন হল, কংগ্রেস হঠাৎ পাইলটের প্রতি এত সহৃদয় কেন হল? তবে কি রাজস্থানের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ঘরে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন? নাকি নেপথ্যে গেহলটের অন্য কোনও চাল আছে?

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement