BREAKING NEWS

১৩ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  বুধবার ২৭ মে ২০২০ 

Advertisement

সরকারি চাকরি ও পদোন্নতিতে সংরক্ষণের দাবি মৌলিক অধিকার নয়, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 9, 2020 1:08 pm|    Updated: February 9, 2020 1:53 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সরকারি চাকরি ও পদোন্নতির ক্ষেত্রে সংরক্ষণের দাবি নিয়ে অনেকদিন ধরেই প্রশ্ন উঠছিল। এই সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মামলা দায়ের হয়েছিল দেশের সর্বোচ্চ আদালতে। এর শুনানিতে চাকরি ও পদোন্নতি বিষয়ে সংরক্ষণের দাবি মৌলিক অধিকার নয় বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। এই বিষয়টি সম্পূর্ণ সরকারের সিদ্ধান্তের ওপরে ছেড়ে দিলেন দুই বিচারপতি এল নাগেশ্বর রাও এবং বিচারপতি হেমন্ত গুপ্তের ডিভিশন বেঞ্চ। তাঁদের কথায়, কোনও আদালতই প্রশাসনকে সরকারি চাকরি ও প্রমোশনে সংরক্ষণল চালু করার জন্য নির্দেশ দিতে পারে না। এই বিষয়টি পুরোপুরি তাদের ওপর নির্ভর করে।

কিছুদিন আগে উত্তরখণ্ডের পূর্ত দপ্তরে সহকারী ইঞ্জিনিয়ার পদে SC ও ST প্রার্থীদের পদোন্নতি দেওয়ার বিষয় নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়। বেশ কিছু সরকারি কর্মী সংরক্ষণ দেওয়ার জন্য আবেদন জানালেও তাতে সম্মতি দেয়নি রাজ্য প্রশাসন। এরপরই এই বিষয়ে বেশ কয়েকটি মামলা দায়ের হয় উত্তরাখণ্ড হাই কোর্টে। উভয় তরফের বক্তব্য শোনার পর সংরক্ষণ চালুর পক্ষে রায় দিয়েছিল আদালত। রাজ্য সরকারকে এই বিষয়ে সরকারি চাকরিরত SC ও ST প্রার্থীদের সংখ্যা খতিয়ে দেখে তথ্য সংগ্রহ করতে বলে। এবং এরপর থেকে উত্তরাখণ্ডে সহকারী ইঞ্জিনিয়ারের শূন্য পদে শুধু তাঁদেরই নিযুক্ত করার নির্দেশ দেয়। হাই কোর্টের এই রায়ের বিরুদ্ধে দেশের সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয় উত্তরাখণ্ডের বিজেপি সরকার।

[আরও পড়ুন: ‘CAA বিভাজন ও বিভেদমূলক’, আইন প্রত্যাহারের দাবিতে সরব গোয়ার আর্চ বিশপ ]

 

গত শুক্রবার এই সংক্রান্ত একগুচ্ছ মামলার একসঙ্গে রায় ঘোষণা করে সুপ্রিম কোর্টে। আর তাতে পরিষ্কার বলে দেয়, সরকারি চাকরি ও প্রমোশনের জন্য সংরক্ষণের দাবি জানানোর বিষয়টি কখনই মৌলিক অধিকার হিসেবে পরিগণিত হতে পারে না। কোনও আদালতই এবিষয়ে সরকারকে নির্দেশ দিতে পারে না। সংবিধানের ১৬ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুযায়ী চাকরিতে বা প্রমোশনের ক্ষেত্রে সংরক্ষণ দেওয়া হবে কিনা তা সম্পূর্ণ রাজ্যের এক্তিয়ারভুক্ত। তবে এই বিষয়ে এগোতে চাইলে রাজ্য প্রশাসনকে তথ্য সংগ্রহ করেই এগোতে হবে। যাতে সংরক্ষণ দেওয়ার পর কোনও মামলা হলে তথ্য-সহ তার জবাব দেওয়া যায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement