×

৮ ফাল্গুন  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৮ ফাল্গুন  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লন্ডনের ব্রায়ানস্টোন স্কোয়ারের একটি সম্পত্তি। যার দাম প্রায় ১৯ লক্ষ ব্রিটিশ পাউন্ড। এই সম্পত্তিটি আসলে কার? রবার্ট বঢরা নাকি অন্য কারও, এই নিয়েই এখন সরগরম জাতীয় রাজনীতি। ইতিমধ্যেই কংগ্রেস সভাপতির শ্যালককে ১৪ ঘণ্টা জেরা করে ফেলেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। এই নিয়ে তৃতীয় দিন জেরা করা হচ্ছে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর স্বামীকে। 

[শিলংয়ে রাজীব কুমারকে জেরা Live Updates: তদন্তে সহযোগিতা করছেন পুলিশ কমিশনার!]

এর আগে গত বুধবার প্রথম রাউন্ডের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল রবার্ট বঢরাকে। সেদিন স্বামীকে নিজে দিল্লির জামনগরে ইডি দপ্তরে পৌঁছে দেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। বুধবার প্রায় সাড়ে ৫ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাঁকে। বৃহস্পতিবারও তলব করা হয় সোনিয়া গান্ধীর জামাতাকে। বৃহস্পতিবার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় প্রায় ৯ ঘণ্টা। দলীয় কর্মসূচিতে যুক্ত থাকায় এদিন স্বামীর সঙ্গে আসতে পারেননি প্রিয়াঙ্কা। তবে, জেরা শেষে তাঁকে নিতে আসেন সদ্য নিযুক্ত কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক। এরপর ইডির তরফে জানানো হয়, তাদের আরও বেশ কিছু প্রশ্ন করা বাকি আছে। আজ (শনিবার) ফের তলব করা হয় রবার্ট বঢরাকে। ইডির দাবি, লন্ডনে ওই বড় ম্যানশনটির পাশাপাশি আরও কয়েকটি জমি আছে, এই ব্যবসায়ীর। যদিও, সেসব অভিযোগ অস্বীকার করছেন বঢরা। সোনিয়া জামাতার অভিযোগ, রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের স্বীকার হচ্ছেন তিনি। তবে, তিনি শুরু থেকেই তদন্তে সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছেন বঢ়রা। সেই মতো এদিন সকালেও যথাসময়ে ইডি দপ্তরে হাজিরা দেন তিনি। সকাল ১০টা ৪৫ মিনিট নাগাদ তিনি পৌঁছান জামনগরে ইডির দপ্তরে।

[মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন রাজ্যজুড়ে হাতির মূর্তি, মায়াবতীকে টাকা ফেরতের নির্দেশ]

এই নিয়ে রাজনৈতিক টানাপোড়েনও কম হচ্ছে না। কংগ্রেসের অভিযোগ, দল এবং গান্ধী পরিবারকে বদনাম করার জন্যই মিথ্যে অভিযোগ আনা হচ্ছে রবার্টের বিরুদ্ধে। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী নিজেও বলছেন, রবার্ট বঢরা বা চিদম্বরমদের বিরুদ্ধে যত খুশি তদন্ত করতে পারে ইডি। কিন্তু রাফালে মামলায় মোদিকেও তদন্তের মুখোমুখি হতে হবে। এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও বঢরাকে সমর্থন করেছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাফ জানান, “রবার্ট বঢরাকে জেরা করার উদ্দেশ্য একটাই- বিরোধীদের জোট গড়তে না দেওয়া।” কেন্দ্রের বিরুদ্ধে কামান দেগে তৃণমূল নেত্রীর আরও অভিযোগ, রাজনৈতিক স্বার্থ পূরণে ইডিকে ব্যবহার করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং