BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নিষেধাজ্ঞা উড়িয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ভাগবতের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 26, 2018 7:57 am|    Updated: January 26, 2018 7:57 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্য সরকারের নির্দেশ অমান্য করে কেরলে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করলেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত। কেরলের পালাক্কড় টাউনে ব্যাস বিদ্যা পীঠম উচ্চ মাধ্যমিক স্কুলে শুক্রবার তেরঙ্গা উত্তোলন করেন ভাগবত।

অথচ কেরল সরকার মাত্র ৪৮ ঘণ্টা আগেই এক নির্দেশিকায় জানিয়ে দেন, কোনও সরকারি বা সরকার পোষিত স্কুলে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করতে পারবেন শুধুমাত্র স্কুলের প্রধান শিক্ষকরাই। ভাগবত এদিন সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ সিবিইএসই অনুমোদিত ব্যাস বিদ্যা পীঠম বিদ্যালয়ে যান। সেখানে এক অনুষ্ঠানে যোগ দেন ও পতাকা উত্তোলন করেন।

[ভারত হিন্দু রাষ্ট্রই, ফের সরব মোহন ভাগবত]

যদিও এদিনের অনুষ্ঠানে কোনও রাজনৈতিক বক্তব্য রাখেননি ভাগবত। তিনদিনের সফরে তিনি পালাক্কড় পৌঁছেছেন। ভাগবতের পতাকা উত্তোলন নিয়ে বির্তক ধামাচাপা দিতে আসরে নেমেছে আরএসএস। তাদের দাবি, জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে সরকারের নিয়ম লঙ্ঘন করেছেন ভাগবত, এটা বলা ভুল। তিনি কোনও অন্যায্য কাজ করেননি।

গতবছরও এই পালাক্কড়েই আর একটি হাই স্কুলে পতাকা উত্তোলন করেন ভাগবত। সেই নিয়ে বিতর্কের রেশ চলতি বছরের শুরুতেও জারি ছিল। তাঁর এই কর্মসূচিকে ঘিরে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়। জেলাশাসক মেরি কুট্টি মনে করেন, কোনও রাজনৈতিক নেতার বিদ্যালয়ে পতাকা উত্তোলন করা উচিত নয়। কেন জাতীয় পতাকা তুলতে কেন অনুমতি দেওয়া হয়েছিল মোহন ভাগবতকে, এই প্রশ্নে পালাক্কাড়ের স্কুল কর্তৃপক্ষর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।

[অযোধ্যাতেই হবে রাম মন্দির, প্রত্যয়ী ঘোষণা ভাগবতের]

কেরলের মুখ্যমন্ত্রীর হাবভাবেই স্পষ্ট তিনি এর শেষ দেখতে চান। সরকার নিয়ন্ত্রিত ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের জন্য তদন্তকারী অফিসারদের নির্দেশ দেন বিজয়ন। এমনকী পুলিশকেও বলেন ‘জিরো টলারেন্স’ নিয়ে চলতে। কেরল প্রশাসন সূত্রে খবর, কোনও রাজনৈতিক নেতা স্কুলে স্বাধীনতা দিবসের দিন পতাকা তুলবেন এটা সরকারি নির্দেশিকার বিরোধী। প্রশাসনিক তদন্তে জানা যায়, স্কুলটির পরিচালকদের কয়েকজন আরএসএস মনস্ক। তারাই উদ্যোগ নিয়ে ভাগবতকে প্রধান অতিথি হিসাবে ডেকেছিলেন। এই নিয়ে বিতর্ক হওয়ায় কেরল বিজেপি নেতৃত্বর বক্তব্য আরএসএস কোনও রাজনৈতিক দল নয় এবং মোহন ভাগবত রাজনৈতিক নেতা নন। এই নিয়ে অহেতুক জলঘোলা হচ্ছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement