BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘মসজিদ নয়, মন্দিরের কাঠামোই গুঁড়িয়ে দেয় করসেবকরা’, শংকরাচার্যের দাবিতে বিতর্ক

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: November 29, 2018 5:10 pm|    Updated: November 29, 2018 5:10 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অযোধ্যায় সরযূ নদীর তীরে ভগবান রামের ২২১ মিটার উচ্চ মূর্তি বসানো নিয়ে উত্তরপ্রদেশ সরকারের পরিকল্পনার বিরোধিতা উঠল ‘পরম ধর্ম সংসদ’-এ। বারাণসীতে আয়োজিত তিনদিনের ওই সম্মেলনে দ্বারকা-সারদা এবং জ্যোতিষপীঠের শংকরাচার্য স্বামী স্বরূপানন্দ সরস্বতী বিশ্ব হিন্দু পরিষদের ‘ধর্মসভা’কে রাজনৈতিক প্রভাবিত আখ্যা দিয়ে বলেছেন, ভগবান রামকে নিয়ে রাজনীতি করা উচিত নয়। শাসক বিজেপি শুধু মূর্তিই দাঁড় করাতে পারে, মন্দির নির্মাণ করতে পারছে না। ২৫ থেকে ২৭ নভেম্বের অনুষ্ঠিত সম্মেলনে তিনি আরও বলেছেন, সরকার গুজরাটে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের সুবিশাল মূর্তি স্থাপন করতে পারে, কিন্তু ভগবান রামের মন্দিরই নির্মাণ করা দরকার, মূর্তি বানানো নয়। কারণ, তিনি মানুষ ছিলেন না।

[হিন্দু শরণার্থীদের উদ্বেগ বাড়িয়ে ঠান্ডা ঘরে নাগরিকত্ব বিল]

সরযূ নদীর তীরে ভগবান রামের মূর্তি প্রতিষ্ঠার বিরোধিতা করে শংকরাচার্য বলেন, এটি সরকারের মোটেই উচিত পদক্ষেপ নয়, এমনকী মানুষের বিশ্বাসেরও বিরোধী। অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে সওয়াল করতে গিয়ে তিনি বলেছেন, অযোধ্যায় ভগরাম রামের জন্মভূমিতে কোনও মসজিদই ছিল না। তাঁর দাবি, ১৯৯২ সালে করসেবকরা যে কাঠামোটি গুঁড়িয়ে দেয় সেটি মন্দিরই ছিল, মসজিদ নয়। অযোধ্যায় বিতর্কিত জমিতে মসজিদ থাকার বিষয়টি পুরোপুরিই প্রচার। তাঁর আরও দাবি, হাই কোর্টে মুসলিম সম্প্রদায় সেখানে মসজিদ থাকার কোনও প্রমাণ পেশ করতে পারেনি। সরস্বতী বলেন, কোনও রাজনৈতিক দলই রাম মন্দির নির্মাণ করেনি, অথচ সেই নিয়ে রাজনীতি করে। অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের জন্য কেন্দ্র সরকার আইন আনার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও তিনি দাবি করেছেন।

[বিজেপির প্রশ্নের জবাব, নিজের গোত্র জানিয়ে দিলেন ‘ব্রাহ্মণ’ রাহুল]

রাজনৈতিক মহলের মতে, লোকসভা ভোটের আগে রাম মন্দির ইস্যুতে চাপে রয়েছে বিজেপি৷ মন্দির তৈরির দাবিপূরণ না হওয়ায় মোদি সরকারের উপর ক্ষুব্ধ কট্টরপন্থীরা৷ তাই উচ্চতম মন্দির তৈরির স্বপ্ন দেখিয়ে মানুষের মন জয় করতে চাইছে বিজেপি৷ উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের তথ্য সম্প্রচারক দপ্তরের আধিকারিক জানান, প্রস্তাবিত রাম মূর্তি ও ভিতের উচ্চতা হবে যথাক্রমে ১৫১ ও ৫০ মিটার। রাম মূর্তির মাথায় থাকবে একটি ছাতা। সেটির উচ্চতা হবে আরও ২০ মিটারের মতো। সব মিলিয়ে মূর্তির উচ্চতা হতে পারে ২২১ মিটার। যা কিনা বিশ্বের সব থেকে উঁচু মূর্তি হিসাবে আকাশ ছুঁয়ে দাঁড়িয়ে থাকবে। মূর্তিটি মূলত তৈরি হবে ব্রোঞ্জ দিয়ে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement