BREAKING NEWS

৭ কার্তিক  ১৪২৮  সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ফের কথার খেলাপ চিনের! গালওয়ানে সেনা তৎপরতা বাড়াচ্ছে লালফৌজ

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 25, 2020 8:58 am|    Updated: June 25, 2020 9:05 am

Satellite images show Galwan standoff intensifying

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এবারও কথা রাখল না চিন (China)! কম্যান্ডার স্তরে আলোচনার পর গালওয়ান (Galwan Vally) উপত্যকা থেকে সেনা সরাতে রাজি হয়েছিল লালফৌজ। কিন্তু উপগ্রহ চিত্র সে কথা বলছে না। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়া এক উপগ্রহ চিত্রে দেখা গিয়েছে, গালওয়ান উপত্যকায় ১৪ নম্বর পেট্রলিং পয়েন্টের কাছ থেকে সেনা সরানো তো দূরের কথা, বরং তৎপরতা বাড়িয়েছে ড্রাগনের দেশ। প্রসঙ্গত, গতবারও কথা দিয়ে কথা রাখেনি চিন। সেই অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়েছে ভারতও। ফলে তাঁরাও গালওয়ান উপত্যকায় সেনা তৎপরতা বাড়িয়েছে বলেই খবর।

শুধু মাত্র ১৪ নম্বর পেট্রলিং পয়েন্টই নয়, সূত্র বলছে প্যাংগং লেক ঘিরে একাধিক স্থায়ী নির্মাণ করছে ‘ড্রাগনের দেশ’। এমনকী, পিপলস লিবারেশন আর্মি (PLA) লাদাখের আরও দুটি এলাকায় সেনা তৎপরতা বাড়িয়েছে। শুরু করেছে স্থায়ী নির্মাণও। এর মধ্যে রয়েছে Daulat Beg Oldie (DBO) and Depsang Sectors। সূত্রের খবর, দুটি এলাকাতেই বুলডোজার, ট্রাক-সহ একাধিক জিনিস মজুত করতে শুরু করেছে চিন। এমনকী, সেনা জওয়ানদের আনাগোনাও অনেকটা বেড়েছে বলে খবর। সবমিলিয়ে বলাই যায়, টেবিলে বসে যতই সমস্যা মেটানোর কথা বলুক চিন, বাস্তবে তার প্রতিফলন নেই। 

[আরও পড়ুন : লাদাখে আহত জওয়ানদের কুর্নিশ, সাহসিকতার শংসাপত্র দিলেন সেনাপ্রধান]

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার লাদাখে ১১ ঘণ্টার কোর কম্যান্ডার লেভেল ম্যারাথন বৈঠকে শেষপর্যন্ত প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (LAC) সেনা পিছনোর ব্যাপারে দুই দেশের বাহিনী পারস্পরিক ঐক্যমতে এসেছে বলে জানা গিয়েছে ভারতীয় সেনা সূত্রে। সূত্রের খবর, পূর্ব লাদাখের মলডো অঞ্চলে ইতিবাচক ও গঠনমূলক আলোচনা হয়েছে দুই সেনার মধ্যে। ভারতীয় সেনার দাবি, পূর্ব লাদাখের গালওয়ান-সহ প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর জায়গা গুলি থেকে সরে আসার কথায় রাজি হয়েছে চিনা সেনা (PLA)।

[আরও পড়ুন : ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভোলবদল চিনের! ভারতের বিরুদ্ধে লাদাখে উসকানির জোড়া অভিযোগ]

কিন্তু বুধবার এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ পাওয়া উপগ্রহ চিত্র অন্য কথা বলছে। চিত্রে দেখা গিয়েছে, গালওয়ানের বিতর্কিত ১৪ নম্বর পেট্রলিং পয়েন্টে চিনের তরফে জেসিবি মেশিল, আগে থেকে বানানো ছাউনি মজুত করা হচ্ছে। সেনা সরানো তো দূরে থাক, বরং বেড়েছে তৎপরতা। এই উপগ্রহ চিত্র দেখে স্যাটেলাইট ইমেজারি বিশেষজ্ঞ বিনায়ক ভাট জানান, “দুপক্ষই নিজেদের দিকে সেনা মোতায়েন করে রেখেছে। তবে চিন কথা দিলেও তাঁদের সেনা সরিয়ে নেয়নি।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement