৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

রথযাত্রা উপলক্ষে সেজে উঠছে পুরী, নিরাপত্তায় বাড়তি নজর প্রশাসনের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 8, 2018 10:59 am|    Updated: July 8, 2018 11:02 am

Security tightened for Puri Rathyatra

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আর মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা৷ শনিবারই রথযাত্রা৷ তার আগে সেজে উঠছে পুরী৷ প্রতি বছর প্রায় কয়েক লক্ষ পুণ্যার্থী জগন্নাথ দর্শনে ভিড় জমান৷ সেকথা মাথায় রেখে মন্দির চত্বরের নিরাপত্তায় বিশেষ নজরদারির বন্দোবস্ত করা হয়েছে৷

চলতি বছর রথযাত্রায় পুরীর নিরাপত্তার বিষয়টি দেখভাল করছেন এডিজি সত্যজিত মোহান্তি৷ যান নিয়ন্ত্রণ, মন্দিরের ভিতর ও বাইরে ভিড় নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বে রয়েছেন আইজি৷ ইতিমধ্যেই নিরাপত্তার বিষয়ে ওড়িশা প্রশাসনের তরফে একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হয়৷ ওই বৈঠকে স্থির হয়, নিরাপত্তার দায়িত্বে বন্দুকধারী পুলিশের পাশাপাশি থাকবে দু’হাজারেরও বেশি হোমগার্ড,  সিআরপিএফ, দুই কোম্পানি সুইফট অ্যাকশন ফোর্স৷ এছাড়াও দুই ইউনিট স্পেশ্যাল অপারেশন গ্রুপ থাকবে৷ বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর পাশাপাশি থাকবে ওড়িশা বিপর্যয় মোকাবিলা দলও৷ ওড়িশা পুলিশের ডিজি আরপি শর্মা বলেন, যে কোনওরকম অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে রাজ্য প্রশাসনের তরফে যেমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, পাশাপাশি কেন্দ্রের কাছে অতিরিক্ত বাহিনী চেয়ে পাঠানো হয়েছে৷

[সকল ধর্মাবলম্বীর জন্য খুলতে হবে পুরীর মন্দির, রথযাত্রার আগে রায় শীর্ষ আদালতের]

রথযাত্রার সময় দূর থেকে আসা পুণ্যার্থীদের কোন পথে মন্দিরে নিয়ে আসা হবে, কীভাবেই বা মূল গর্ভগৃহে ঢোকানো হবে, পুণ্যার্থীদের গাড়ির পার্কিংয়ের বন্দোবস্ত সংক্রান্ত সব আলোচনা হয়৷ আট থেকে আশি বিভিন্ন বয়সের মানুষই এসময় পুরীতে ভিড় জমান৷ তাই বয়স্ক, মহিলা ও শিশুদের সুরক্ষাতেও বিশেষ বন্দোবস্ত নিয়েছে ওড়িশা প্রশাসন৷ রথযাত্রার দিন যান নিয়ন্ত্রণ করা হবে৷ শহরের মাঝে একটি থানায় ট্রাফিক কন্ট্রোলরুম খোলা হবে৷ পুরীকে চারটি জোনে ভাগ করা হবে৷ এক একটি জোনে থাকবে সাতটি করে সেক্টর৷ একজন সিনিয়র অফিসার প্রতিটি জোনের দায়িত্বে থাকবেন৷ ট্রাফিক কন্ট্রোলরুম থেকেই বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় মোতায়েন পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখবেন সিনিয়র অফিসাররা৷

[পুরীর মন্দিরে ‘চমৎকার’, সিল করা খামে মিলল রত্নভাণ্ডারের হারানো চাবি]

রথযাত্রা উপলক্ষে বাড়ছে ট্রেনের সংখ্যাও৷ অন্তত ১৪৮টি ট্রেন বাড়ানো হয়েছে৷ স্টেশনে থাকবে হেল্প ডেস্ক৷ বৈঠকে সমুদ্র সৈকতের নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনা হয়৷ সমুদ্র সৈকতে থাকবেন  চারশোজন লাইফ গার্ড৷ সমুদ্র সৈকত ও পুরীর মন্দিরের আশেপাশে বসানো হচ্ছে সিসিটিভি৷ স্টেশনগুলিতেও সিসিটিভি লাগানো হচ্ছে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে