৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ঘাতকের ভূমিকায় সেলফি। নিজেদের ছবি তোলার নেশায় দিগ্বিদিক জ্ঞান শূন্য হয়ে বেঘোরে মৃত্যু। এবারের ঘটনাস্থল পাঞ্জাবের গুরদাসপুর। ব্রিজ থেকে আরও ভাল ছবি তুলতে গিয়ে জলাধারে পড়ে যান লভপ্রীত কউর এবং নিশা। জলের তোড়ে ভেসে গিয়ে মারা যান দুই বন্ধু। এই ঘটনায় দুজনের কাণ্ডজ্ঞানহীনতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়রা।

[নৌকায় সেলফি তুলতে গিয়ে সলিল সমাধি আট বন্ধুর]

ছবিতে নিজেকে আরও সুন্দর, ঝকঝকে দেখতে হবে। সেই ছবি পোস্ট করে জানাতে হবে গোটা দুনিয়াকে। এই তাগিদেই ফের মৃত্যুফাঁদ হিসাবে দেখা দিল সেলফি। গুরদাসপুরের সাথালি ব্রিজ এলাকার দর্শনীয় স্থান। ব্রিজের পাশে রয়েছে একটি জলাধার। দিনভর যেখানে উৎসাহীদের আনাগোনা লেগেই থাকে। ভিড় এড়াতে শনিবার কাকভোরে ২১ বছরের লভপ্রীত এবং ১৮ বছরের নিশা সাথালিতে পৌঁছে গিয়েছিল। চটপট ছবি তুলতে শুরু করে দুই বান্ধবী। সেতুর কাছে গিয়ে দুজনের ছবি যেন মনঃপুত হচ্ছিল না। আরও ভাল ছবির লোভে ব্রিজের একেবারে কিনারায় পৌঁছে গিয়েছিল দুজন। ছবিতে যাতে ব্রিজ এবং জলাধার একসঙ্গে দেখা যায় তার জন্য অ্যাডভেঞ্চার খুঁজছিল লভপ্রীত এবং নিশা। এর ফলে বিপদের ফাঁদে জড়িয়ে পড়েন দুই বান্ধবী। প্রায় ২০ ফুট নিচে পড়ে গিয়ে দুজনে গুরুতর আহত হন। কিছু বোঝার আগে জলাধারের স্রোত তাদের টেনে নিয়ে যায়। সাতসকালে এঘটনার সময় দুজন চিৎকার করলেও তা অন্যদের কাছে পৌঁছয়নি। স্থানীয় ইউবিডিসি ক্যানালে দুই বান্ধবীর খোঁজ শুরু করেন এলাকার বাসিন্দারা। বেলার দিকে ডুবুরিরা তাদের দেহ উদ্ধার করে। মৃতদের পরিজনরা দুই মেয়ের কাণ্ডকারখানা নিয়ে অন্ধকারে ছিলেন। এই দুর্ঘটনার জন্য জলাধারের নিরাপত্তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন এলাকার বাসিন্দারা। তাদের বক্তব্য, জলাধারের কাছে সেভাবে গার্ড কিছু না থাকায় এমন ঘটনা ঘটে গেল।

[বিপজ্জনক জায়গায় সেলফি তুললেই এবার পড়তে হবে পুলিশের কোপে]

সেলফি তুলতে গিয়ে মৃত্যুর নিরিখে দুনিয়ায় সবার আগে ভারত। এই লজ্জার পরিসংখ্যান বুঝিয়ে দেয় হাতে অত্যাধুনিক মোবাইল ফোন এলেও, সচেতনতা কার্যত শূন্য। তারজন্য নাগপুরে সেলফির ফাঁদে পড়ে ৮ বন্ধু নৌকা থেকে পড়ে তলিয়ে যান। গুরদাসপুরে ব্রিজ থেকে পড়ে চিরতরে হারিয়ে যান দুই বান্ধবী।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং